১ জুন, ২০২৩ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ | ১১ জিলকদ, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  বিদগ্ধজনদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য থেকে প্রতিপক্ষকে বিরত থাকার আহবান মেয়র প্রার্থী মাহাবুবের   ●  কক্সবাজার পৌরসভার উদ্যোগে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উদযাপন   ●  কক্সবাজারে ওয়ার্ল্ডফিশ এর সিনার্জিস্টিক পার্টনারশীপ কর্মশালা   ●  সাগরে ইঞ্জিল বিকল হয়ে ১৩ দিন ভাসতে থাকা ২১ জেলে জীবিত উদ্ধার   ●  চকরিয়া ও টেকনাফে শীঘ্রই চালু হচ্ছে কউকের জোনাল অফিস   ●  মরিচ্যায় ভয়ংকর অপহরণকারী সিন্ডিকেট শীর্ষক সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ   ●  পেশীশক্তির প্রদর্শন ও হুমকি দিয়ে নৌকা বিজয় ঠেকানোর চেষ্টা বোকামী : মেয়র প্রার্থী মাহাবুব   ●  র‍্যাবের জালে ধরা পড়ল ৯ লাখ ইয়াবাসহ ৫ মাদক কারবারি: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার   ●  ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেল বাবার   ●  হাফেজখানা ও এতিমখানার ৮৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

চকরিয়ায় ন্যাশনাল পার্কে প্রকৃতি প্রেমীদের লাগানো বিপুল গাছ কেটে দেয়ার অভিযোগ

Chakaria Picture 11-03-2015
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ফুলছড়ি রেঞ্জের ন্যাশনাল পার্কের ভেতর লাল পাহাড় এলাকায় প্রকৃতি প্রেমীদের লাগানো বিপুল পরিমাণ গাছ কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় কতিপয় দুর্বৃত্তরা বনকর্মীদের উপস্থিতিতে হানা দিয়ে এসব গাছ কেটে ফেলেন। স্থানীয় সুত্রে অভিযোগ উঠেছে, গাছ গুলো কাটার সময় ওই এলাকার অনতিদুরে মেধাকচ্ছপিয়া বনবিটের বনকর্মী ও ক্রেল প্রকল্পের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
অভিযোগে খুটাখালী ইউনিয়নের মেধাকচ্ছপিয়াস্থ গর্জনতলী এলাকার প্রকৃতি প্রেমী একাধিক ব্যক্তি জানান, তাঁরা বনবিভাগের মেধাকচ্ছপিয়া বনবিটের অধীন ন্যাশনাল পার্কের জায়গা জবর দখল চেষ্টা ঠেকাতে লাল পাহাড় এলাকায় বছর আগে নিজেদের উদ্যোগে কিছু স্থানে বিভিন্ন প্রজাতির চারা গাছ লাগিয়ে বনায়ন সৃজন করেন। কিন্তু গাছ গুলো বড় হয়ে উঠলে বনকর্মীদের ইন্ধনে কয়েকমাস পর দুর্বৃত্তরা রাঁেতর আধাঁরে গাছ গুলো কেটে দেন।
প্রকৃতিপ্রেমীরা জানান, এ ঘটনার পর তাঁরা আবারও বিপুল টাকা খরচ করে একই জায়গায় অন্তত ৬শতাধিক চারা গাছ রোপন করেন। বর্তমানে রোপন করা গাছের চারা গুলো বেশ বড় হয়েছে। এ অবস্থায় জায়গা থেকে উচ্ছেদ করার লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় কতিপয় দুর্বৃত্তরা হানা দিয়ে রোপন করা অন্তত শতাধিক গাছ কেটে দিয়েছে। প্রকৃতিপ্রেমীরা জানান, গাছ কাটার পর সেখানে আগুনও লাগিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।
জানতে চাইলে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ডিএফও মো.শাহ-ই-আলম সাংবাদিকদের বলেন, গাছ লাগানোর মাধ্যমে প্রকৃতিপ্রেমী পরিচয়ধারীরা মুলত ন্যাশনাল পার্কের জায়গা দখলে নামে। বনবিভাগের জায়গায় গাছ লাগাবে বনবিভাগ। এতে প্রকৃতিপ্রেমীদের লাভ কি। শুনেছি বন রক্ষার কাজে সম্পৃক্ত উপকারভোগী লোকজন লাল পাহাড়ে আগাছা পরিস্কার করেছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।