১৪ জুলাই, ২০২৪ | ৩০ আষাঢ়, ১৪৩১ | ৭ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত   ●  উখিয়ায় পারিবারিক পুষ্টি বাগান মেটাচ্ছে সবজির চাহিদা   ●  বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির থাইংখালী সার্ভিস সেন্টারের ৬ষ্ঠ পিএফটি মিটিং অনুষ্ঠিত

চকরিয়ায় ন্যাশনাল পার্কে প্রকৃতি প্রেমীদের লাগানো বিপুল গাছ কেটে দেয়ার অভিযোগ

Chakaria Picture 11-03-2015
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ফুলছড়ি রেঞ্জের ন্যাশনাল পার্কের ভেতর লাল পাহাড় এলাকায় প্রকৃতি প্রেমীদের লাগানো বিপুল পরিমাণ গাছ কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় কতিপয় দুর্বৃত্তরা বনকর্মীদের উপস্থিতিতে হানা দিয়ে এসব গাছ কেটে ফেলেন। স্থানীয় সুত্রে অভিযোগ উঠেছে, গাছ গুলো কাটার সময় ওই এলাকার অনতিদুরে মেধাকচ্ছপিয়া বনবিটের বনকর্মী ও ক্রেল প্রকল্পের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।
অভিযোগে খুটাখালী ইউনিয়নের মেধাকচ্ছপিয়াস্থ গর্জনতলী এলাকার প্রকৃতি প্রেমী একাধিক ব্যক্তি জানান, তাঁরা বনবিভাগের মেধাকচ্ছপিয়া বনবিটের অধীন ন্যাশনাল পার্কের জায়গা জবর দখল চেষ্টা ঠেকাতে লাল পাহাড় এলাকায় বছর আগে নিজেদের উদ্যোগে কিছু স্থানে বিভিন্ন প্রজাতির চারা গাছ লাগিয়ে বনায়ন সৃজন করেন। কিন্তু গাছ গুলো বড় হয়ে উঠলে বনকর্মীদের ইন্ধনে কয়েকমাস পর দুর্বৃত্তরা রাঁেতর আধাঁরে গাছ গুলো কেটে দেন।
প্রকৃতিপ্রেমীরা জানান, এ ঘটনার পর তাঁরা আবারও বিপুল টাকা খরচ করে একই জায়গায় অন্তত ৬শতাধিক চারা গাছ রোপন করেন। বর্তমানে রোপন করা গাছের চারা গুলো বেশ বড় হয়েছে। এ অবস্থায় জায়গা থেকে উচ্ছেদ করার লক্ষ্যে গত মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় কতিপয় দুর্বৃত্তরা হানা দিয়ে রোপন করা অন্তত শতাধিক গাছ কেটে দিয়েছে। প্রকৃতিপ্রেমীরা জানান, গাছ কাটার পর সেখানে আগুনও লাগিয়ে দেয় দুর্বৃত্তরা।
জানতে চাইলে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ডিএফও মো.শাহ-ই-আলম সাংবাদিকদের বলেন, গাছ লাগানোর মাধ্যমে প্রকৃতিপ্রেমী পরিচয়ধারীরা মুলত ন্যাশনাল পার্কের জায়গা দখলে নামে। বনবিভাগের জায়গায় গাছ লাগাবে বনবিভাগ। এতে প্রকৃতিপ্রেমীদের লাভ কি। শুনেছি বন রক্ষার কাজে সম্পৃক্ত উপকারভোগী লোকজন লাল পাহাড়ে আগাছা পরিস্কার করেছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।