১৮ জুলাই, ২০২৪ | ৩ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১১ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে   ●  আন্দোলনের নামে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির প্রতিবাদে কক্সবাজার ছাত্রলীগের সমাবেশ   ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত

চকরিয়ায় অবরোধবিরোধী শক্ত অবস্থান আওয়ামী লীগের

বার্তা পরিবেশক:

আন্দোলনের নামে বিএনপি-জামায়াতের ডাকা অবরোধ চলাকালে আগুন-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও নাশকতা ঠেকাতে এবং জনগণের জানমালের হেফাজত করতে কক্সবাজারের চকরিয়া ও পেকুয়া বেশ তত্পর রয়েছেন আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ এর নির্দেশনায় দলীয় সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা রাজপথে শক্ত অবস্থান নেওয়ায় আন্দোলনকারী বিএনপি-জামায়াতের কাউকে মাঠে নামতে দেখা যায়নি।
অবরোধের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়ে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারা জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন রাষ্ট্র ক্ষমতায় আছেন ততদিন এই দেশ, দেশের মানুষ পথ হারাবে না। এজন্য স্বাধীনতাবিরোধীচক্র বিএনপি-জামায়াত যতই অবরোধ, হরতাল ঘোষণা করুক না কেন, তা জনগণের মধ্যে প্রভাব ফেলতে পারবে না।
চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তরুণ উদ্যোক্তা তানভীর আহমদ সিদ্দিকী তুহিন বলেন, এমপি জাফর আলম মহোদয়ের নির্দেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জনগণের জানমালের হেফাজত করতে দিনরাত মাঠে রয়েছেন। তাই স্বাধীনতাবিরোধীচক্র বিএনপির-জামায়াতের ডাকা কোন আন্দোলনই প্রভাব ফেলতে পারবে না। জনগণকে বলবো আপনারা নির্ভয়ে পথ চলুন। দিনের কাজ করুন। কোন অপশক্তিই মানুষের ক্ষতি করতে পারবে না। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রাজপথ পাহারায় নিয়োজিত রয়েছে।
এদিকে বিএনপি-জামায়াতের ডাকা অবরোধের (১৫ নভেম্বর বুধবার) ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এতে আন্দোলনকারী বিএনপি-জামায়াতের কোন নেতাকর্মীকে মাঠে নামতে দেখা যায়নি।
এদিকে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগ, মাতামুহুরী উপজেলা আওয়ামী লীগ ও পেকুয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী নিজ নিজ এলাকায় একাধিক পয়েন্টে সতর্ক অবস্থা নেয়। এতে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কসহ অভ্যন্তরীণ কোন সড়কে বিএনপি-জামায়াতের কোন নেতাকর্মী মাঠে নামতে সাহস করেনি। দিনভর নির্বিঘ্নে চলেছে যানবাহন। সাধারণ মানুষও স্বস্তিতে থেকে তাদের প্রাত্যহিক কর্ম সম্পাদন করতে পেরেছেন।
দলীয় সূত্র জানায়- অবরোধ চলাকালে ভোর থেকে মহাসড়ক লাগোয়া পৌরসভা ছাড়াও ইউনিয়নগুলোতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা সতর্ক পাহারায় নিয়োজিত ছিলেন যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে সংঘটিত না হয়। প্রতিটি স্পটে এমপি জাফর আলমের সার্বিক নির্দেশনায় সতর্ক অবস্থান নিতে দেখা যায় দলীয় নেতাকর্মীদের। এতে দিনভর কোথাও কোন ধরণের অপতত্পরতা চালাতে পারেনি বিএনপি-জামায়াত।
অবরোধবিরোধী শক্ত অবস্থানে এমপি জাফর আলমের নির্দেশে চকরিয়ায় মাঠে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মুছা, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটু, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলমগীর, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক তানভীর আহমদ সিদ্দিকী তুহিনসহ দলের উপজেলা, পৌরসভা এবং স্ব স্ব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি বশির আলম, সাধারণ সম্পাদক ইমসাইল হোসেন ধলু প্রমূখ।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।