১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১৮ মাঘ, ১৪২৯ | ৯ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ   ●  সেন্টমার্টিনে রিসোর্ট নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশ দিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর

৮ ইউনিয়নের কোন চেয়ারম্যানগন উপস্থিত নেই

shomoy
মহেশখালী উপজেলার মাসিক আইনশৃংখলা ও উন্নয়নসম্বনয় সভায় হ-য-ব-র-ল অবস্থায় পরিনত হয়েছে।  ২৯ মার্চ উপজেলার মাসিক আইন শৃংখলা ও উন্নয়নন সম্বয়ন আহবান করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার। অত্র  সভা সকাল ১১টায় আনুষ্টানিক ভাবে শুরু হওয়ার কথা থাকলেও দুপুুর সাড়ে ১২টায়ও কোন চেয়ারম্যান সভায় উপস্থিত ছিলেন না।  অনেক সময়  অপেক্ষার পর  অবশেষে চেয়ারম্যানদের অনুপস্থিতিতে শুরু হয় মাসিক আইন শৃংখলা কমিটির সভা।
আইন শৃংখলা কমিটির সভাপতি ইউএনও আনোয়ারুল নাসের নিকট উপস্থিত অপরাপর সদস্যরা চেয়ারম্যানগনের অনুপস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে হোয়ানকের চেয়ারম্যানের পিতার মৃত্যুতে কারনে   তার অপুস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করলে অন্যান্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণের অনুপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারেনি। এ কারনে উপজেলা আইন শৃংখলার মাসিক সভাটি হ-য-ব-র-লে পরিনত হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যানদের ইতি পূর্বে   অনেকবার সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকার বিষয়টি আলোচনায় আসলে কার্যত কোন সুফল আসেনি।
সরকারের প্রাপ্ত বরাদ্ধের  ভাগবাটোয়ার দিন দৌড়ঝাপ করলেও জাতীয় ও জনগুরুত্বপূর্ন দিবসে চেয়ারম্যানদের অনুপস্থিতির লক্ষ্য করা যায় নিয়মিত। স্থানীয়  সভা বা সমাবেশে অনেক চেয়ারম্যানগণ আওয়ামীলীগের দাবী করলেও সরকারের কোন রাষ্ট্রিয় দিবসে এদের উপস্থিতি নগণ্য।
এবারেরর আইন শৃংখলা সভায় মহেশখালী থানার অফিসার ইনর্চাজ (তদন্ত) গত ফেব্রুয়ারী মাসে মাদক দ্রব্য আইনে ২টি, অস্ত্র আইনে ১টি, নারী নির্যাতন আইনে ১৫টি ও অন্যান্য ৮টিসহ ২৬টি মামলা রুজু হয় বলে সভাকে অবহিত করেন। মাসিক উন্নয়ন সম্বনয়ন কমিটির সভায় মহেশখালী-কক্সবাজার ফেরীঘাটের যাত্রী সুবিধার্থে মহেশখালীর অংশে জেটিঘাটের পাশে জমাটকৃত পলি মাটি অপসারন করে খাল খননে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও মহেশখালী পৌরসভা সহযোগিতা কামনা করেন। উক্ত সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলার চেয়ারম্যান মো: হোছাইন ইব্রাুহিম, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ডা: নুরুল আমিন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী, পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া,  মহেশখালী থানার ওসি (তদন্ত) দিদারুল ফেরদৌস, মহেশখালী ভাইচ চেয়ারম্যান জাহান আরা বেগম, প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা নেবু লাল দত্ত, উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশিষ চিরান, উপজেলা প্রকৌশলী মোশাররফ হোসেন, উপজেলা বন কর্মকর্তা আনিসুল হক, প্রকল্প কর্মকর্তা সফিউল আলম সাকিব, রেঞ্জকর্মকর্তা গোরকঘাটা জাহাঙ্গির ইকবাল, পল্লী বিদ্যুতর ডিজিএম  আবুল বাশার সামছুদ্দিন আহমদ,মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা উম্মে সুরাইয়া আমিন, সাংবাদিক এবি পারভেজ,সমবায় কর্মকর্তা গোলাম মাসুদ কুতুবী,সমাজসেবা পক্ষে গোপাল দাশ, সহকারী প্রকৌশলী গৌরাঙ্গ চন্দ্র বিশ্বাস, বড় মহেশখালীর প্যাানেল চেয়ারম্যান জাফর আলম, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নিরন্দ্র চন্দ্র্র পাল, একটি বাড়ী একটি খামার সুলতানা আনজুমান রশিদ, মাষ্টার বজ্রগোপাল, রবি চাকমা  প্রমুখ।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।