১৭ জুলাই, ২০২৪ | ২ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১০ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে   ●  আন্দোলনের নামে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির প্রতিবাদে কক্সবাজার ছাত্রলীগের সমাবেশ   ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত

সীমান্তে গরু চোরাকারবারীদের তালিকা করে আইনের আওতায় আনা হবে-ডিসি মুহম্মদ শাহীন ইমরান

বিশেষ প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের রামুতে চোরাচালান ও মাদক প্রতিরোধ সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে মতবিনিময় সভা করেছে উপজেলা প্রশাসন। শনিবার উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে এ সভার আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন রামু। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা মুস্তফার সভাপতিত্বে আয়োজিত এ সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে ছিলেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহম্মদ শাহীন ইমরান।
চোরাচালান ও মাদক প্রতিরোধ সচেতনতা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরান বলেন, গর্জনিয়া কচ্চপিয়ার প্রতিবেশী দেশ মায়ানমারের সীমান্ত না থাকার পরও এই অঞ্চলটি ইদানীং চোরাচালান প্রবণ এলাকা হয়ে উঠেছে। এটার কারন হচ্ছে আমাদের পার্শবর্তী উপজেলা নাইক্ষ্যংছড়ি থেকে বিভিন্ন মাদক অনুপ্রবেশ করছে। এটি প্রতিরোধকল্পে আমাদের সকল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহ বিজিবি কাজ করছে।
তিনি বলেন, গর্জনিয়া এবং কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে মাদক ও চোরাচালান বিরোধী কমিটি করা হবে সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানকে সভাপতি করে, এবং এই কমিটি প্রশাসনকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করবে।
তিনি আরও বলেন, গর্জনিয়া বাজারের আশেপাশে যে সকল মোবাইল ব্যাংকিং দোকান রয়েছে সেগুলাতেও নজরধারী করতে হবে এবং তারা প্রতিদিন তাদের লেনদেনের তালিকা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর জমা দিতে হবে। এবং গর্জনিয়া কচ্ছপিয়া সহ আশেপাশের সকল এলাকায় ক্যাটেল সার্ভে পরিচালনা করা হবে। মাদক সহ সীমান্তের চোরাচালানে জড়িত ব্যক্তি যতই শক্তিশালী হউক না কেনো তাদের ছাড় দেয়া হবে না, তাদের আইনের আওতায় আনতেই হবে। তাদের বিরুদ্ধে আমাদের জিরু ট্রলারেন্স নীতি অটল থাকবে। যদি সীমান্তে গরু চোলা চালান বন্ধ না হয় তাহলে আগামী বছর থেকে গর্জনিয়া বাজারে গরুর ইজারা দেওয়া হবে না, এবং এই চোরাচালানে কোন জনপ্রতিনিধি জড়িত থাকে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ডুলাহাজারা ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক পরীক্ষিত বড়ুয়া টিটুল বড়ুয়ার সঞ্চালনায় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু মো. ইসমাইল নোমান।
অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রামু ভেটেরিনারি সার্জন ডা: মো. আবদুল কাদের রবিন, নাইক্ষ্যংছড়ি ১১ বিজিবি জোন জেসিও মো. আবদুল লতিফ, রামু থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাজমুল হুদা,গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান চৌধুরী বাবুল, গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. সাইফুল ইসলাম,গর্জনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কায়সার জাহান চৌধুরী, নাইক্ষ্যংছড়ি প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা মাঈনুদিন খালেদ, গর্জনিয়া ফয়জুল উলুম মাদ্রাসার প্রাক্তন অধ্যক্ষ মৌ মো. আয়ুব, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শফিউল হক, কচ্চপিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মো. ইউনুস মেম্বারসহ স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী, এলাকায় রাজনীতিক, সামাজিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ। সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ শিহাব উদ্দিন। চোরাচালান ও মাদক প্রতিরোধ সচেতনতা সভা শেষে জেলা প্রশাসক কক্সবাজার কচ্ছপিয়া ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে তাল গাছের চারা রোপন করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।