১৯ মে, ২০২২ | ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ | ১৭ শাওয়াল, ১৪৪৩


শিরোনাম
  ●  সম্প্রীতি রক্ষায় সকলকে সকল ধর্মের প্রতি সকলকে শ্রদ্ধাশীল হতে হবে- এমপি কমল   ●  আ’লীগে ঘাপটি মেরে থাকা খন্দকার মোস্তাকের বংশধরদের বিতাড়িত করার আহবান : মেয়র মুজিব   ●  নিজ গুলিতে প্রাণ গেলো বনকর্মীর   ●  কক্সবাজারে অবৈধ যানবাহনের বিরুদ্ধে অভিযান, জরিমানা আদায়   ●  রামুতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ টুর্ণামেন্ট উপজেলা চ্যাম্পিয়ন ফতেখাঁরকুল   ●  গরীবের বন্ধু মনুর বিরুদ্ধে অপপ্রচারের তীব্র প্রতিবাদ অটো রিক্সা শ্রমিকদের   ●  রামু প্রেস ক্লাবের কমিটি গঠিত; নীতিশ বড়ুয়া সভাপতি, সোয়েব সাঈদ সাধারণ সম্পাদক   ●  রামুতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের উদ্বোধনী দিনে খুনিয়াপালং, দক্ষিণ মিঠাছড়ি, রাজারকুল জয়ী   ●  হলদিয়াপালংয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন কাউন্সিল সম্পন্ন   ●  উখিয়ার লোকালয়ে একজোড়া বন্যহাতি; কয়েক ঘন্টার প্রচেষ্টায় ফিরলো বনে

সিলেবাস কমিয়ে জুনে এসএসসি পরীক্ষা

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে স্থগিত থাকা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগামী জুনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। গত ১০ মাস ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের পড়াশোনা ব্যাপকভাবে ব্যাহত হয়েছে। এজন্য একটি সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রণয়ন করে ওই আলোকে পরীক্ষা নিতে চায় সরকার।

সর্বশেষ নবম-দশম শ্রেণির প্রতিটি বিষয় থেকে ২০ থেকে ২৫ শতাংশ কমিয়ে এ সিলেবাস তৈরি করার প্রস্তাবনা দিয়েছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

বৃহস্পতিবার জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের উচ্চ মাধ্যমিক শাখার ঊর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞ প্রফেসর সৈয়দ মাহফুজ আলী যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আমাদের কাছে মন্ত্রণালয় থেকে একটা প্রস্তাবনা চাওয়া হয়েছিল। আমরা সেই আলোকে সিলেবাসে প্রত্যেকটা চাপ্টার বিশ্লেষণ করে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো অন্তর্ভূক্ত করে একটি সংক্ষিপ্ত সিলেবাস তৈরি করেছি।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) পিএ টু চেয়ারম্যান মো. মোছাদ্দেক হোছাইন যুগান্তরকে বলেন, আমাদের বিশেষজ্ঞদের প্রস্তাবনা (গত রোববার) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেটি অনুমোদন দেয়া হলে শিক্ষাবোর্ডগুলো থেকে তা প্রকাশ করা হবে। সেই আলোকে এ বছরের এসএসসি পরীক্ষার আয়োজন হতে পারে।

প্রসঙ্গত, করোনার উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ২০২০ সালের পঞ্চম, অষ্টম ও এইচএসসি পরীক্ষা বাতিল করে অটোপাস দেয়া হয়েছে। চলতি শিক্ষাবর্ষের এক মাস পার হতে চললেও এখনো বন্ধ রয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কয়েক দফায় আগামী ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত এ ছুটি বাড়ানো হয়েছে।
– যুগান্তর

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।