১৮ মে, ২০২৪ | ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ৯ জিলকদ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  ক্যাম্পের বাইরে সেমিনারে অংশ নিয়ে আটক ৩২ রোহিঙ্গা   ●  চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুল আলমের অভিযোগ;  ‘আমার কর্মীদের হুমকি-ধমকি দেয়া হচ্ছে’   ●  নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সবকিছু কঠোর থাকবে, অনিয়ম হলেই ৯৯৯ অভিযোগ করা যাবে   ●  উখিয়া -টেকনাফে শাসরুদ্ধকর অভিযানঃ  জি থ্রি রাইফেল, শুটারগান ও গুলিসহ গ্রেপ্তার ৫   ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হেড মাঝিকে  তুলে নিয়ে   গুলি করে হত্যা   ●  যুগান্তর কক্সবাজার প্রতিনিধি জসিমের পিতৃবিয়োগ   ●  জোয়ারিয়ানালায় কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় আহত রামু কলেজের অফিস সহায়ক   ●  রামুর বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে পুলিশের সহযোগিতায়  আসছে চোরাই গরু   ●  রামুতে ওসির আশকারায় এসআই আল আমিনের নেতৃত্বে ‘সিভিল টিম’   ●  ড. সজীবের সমর্থনে বারবাকিয়ায় পথসভা

সালাহউদ্দিনের মতো নেতার হাতেই দেশের রাজনীতি পরিবর্তন হয়, তাঁকে সুস্থ ফিরে পেতে চাই : শাহজাহান চৌধুরী

Chatra Dall PICTURE 16.05.2015 (Ukhiya)

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও দলটির মুখপাত্র সালাহউদ্দিন আহমদের উন্নত চিকিৎসা, আইনি জটিলতামুক্ত করে দেশে ফেরত আনা ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে উখিয়া উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে উখিয়া উপজেলা ছাত্রদল। মঙ্গলবার বিকালে উখিয়ার কোটবাজার স্টেশনে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।
জেলা ছাত্রদলের দ্বিতীয়দফা মাসব্যাপি আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে জেলাজুড়ে কর্মসূচি পালন শুরু করেছে দলটি। তারই অংশ হিসেবে উপজেলা ছাত্রদলের মঙ্গলবারের এই কর্মসূচিতে শত শত সাধারণ মানুষ অংশ নেন।
জেলা বিএনপি সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী, জেলা ছাত্রদল সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক মনির উদ্দিনের নেতৃত্বে বিশাল ওই মিছিলটি কোটবাজার এলাকা প্রদক্ষিণ করে সমাবেশে মিলিত হয়।
জেলা বিএনপি সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী প্রধান অতিথির বক্তব্যে যতদ্রুত সম্ভব সালাহউদ্দিন আহমদকে আইনি জটিলতা কাটিয়ে তৃতীয় কোন দেশে উন্নত চিকিৎসার সুযোগ দেয়ার দাবি জানিয়ে বলেন, ‘সালাহউদ্দিন আহমদ সাধারণ কোন নেতা নন। তিনি এমন একজন নেতা যিনি পুরো দেশের রাজনীতিতে পরিবর্তন আনার ক্ষমতা রাখেন।’
তিনি বলেন, ‘সালাহউদ্দিন এমন এক মেধাবি নেতা যার হাত ধরেই কক্সবাজারে যত উন্নয়ন হয়েছে, আর আগামিতে কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার দক্ষতা কেবল তাঁরই রয়েছে।’
‘এমন একজন নেতাকে দুই মাস গুম রেখে শারিরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। যা সুষ্টু রাজনীতির জন্যই অশনিসংকেত’ মন্তব্য করেন শাহজাহান চৌধুরী।
তিনি এই ধরণের অসুস্থ রাজনীতি থেকে সরে আসার জন্যও বর্তমান সরকারের প্রতি আহবান জানান। একই সাথে সালাহউদ্দিন আহমদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন।
কর্মসূচিতে প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা ছাত্রদল সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল। এছাড়াও বিশেষ অতিথি ছিলেন উখিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান সরওয়ার জাহান চৌধুরী এবং উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ চৌধুরী।
প্রধান বক্তা রাশেদুল হক রাসেল বলেন, ‘সালাহউদ্দিন আহমদকে সুস্থ ও অক্ষত অবস্থায় ফিরে পেতে আল্লাহর কাছে ফরিয়াদ করেছি আমরা। আল্লাহ আমাদের সেই দোয়া কবুল করে আমাদের প্রিয় নেতাকে ফিরে পেয়েছি। কিন্তু এখন অসুস্থ নেতাকে উন্নত চিকিৎসা দিয়ে আমাদের কাছে ফিরে আনাই হলো আমাদের লক্ষ্য।’
তিনি বলেন, ‘সালাহউদ্দিন আহমদকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁর চাহিদা মতো বিদেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা, চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরিয়ে এনে সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে তাঁকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।’
এই বিক্ষোভ সমাবেশে উখিয়া উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি রিদুয়ান সিদ্দিকীসহ সকল নেতা-কর্মীর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার দাবি জানান জেলা সভাপতি রাশেদুল হক রাসেল।
উখিয়া উপজেলা ছাত্রদল আয়োজিত এই মিছিল ও সমাবেশে বিশেষ বক্তা ছিলেন জেলা ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক মনির উদ্দিন। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রিয় নেতাকে আমরা সুস্থ শরীরেই দেশে ফেরত চাই। তাই যত ধরণের আইনি জটিলতা হোক না কেন সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করে সালাহউদ্দিন আহমদকে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে দেবেন এই প্রত্যাশায় করছি।’
মিছিল পরবর্তী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উখিয়া উপজেলা ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নাছির উদ্দিন। অনুষ্টান পরিচালনা করেন উপজেলা সাধারণ সম্পাদক আরফাত চৌধুরী।
মিছিল ও সমাবেশে বিশেষ অতিথি হয়ে উপস্থিত ছিলেন জেলা ছাত্রদল সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীনুল ইসলাম শাহীন, যুগ্ম সম্পাদক আলাউদ্দিন রবিন ও জাহিদুল ইসলাম রিটন, কক্সবাজার শহর ছাত্রদল আহবায়ক মোহাম্মদ ইলিয়াছ।
এছাড়াও সমাবেশ ও সমাবেশপূর্ব মিছিলে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা আইয়ুব খন্দকার, ফজল করিম সিকদার, নাছির উদ্দিন ও আবদুর রহিম, যুবদল নেতা এম গফুর উদ্দিন, আহসান উল্লাহ, জামাল মাহমুদ, সাইফুল সিকদার, শামসুল আলম, মোহাম্মদ হোসেন ও গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি খাইরুল আমিন, যুগ্ম সম্পাদক সেলিম সিরাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ইমরান, ছাত্রদল নেতা সাবিত চৌধুরী, হলদিয়াপালং ইউনিয়ন (দক্ষিণ) ছাত্রদল যুগ্ম আহবায়ক মোর্শেদুল হক ভুট্টো, যুগ্ম আহবায়ক মো. রাসেল, জয়নাল আবেদীন, সদস্য আলী হোসেন ও নবী হোসেন, হলদিয়া পালং ইউনিয়ন (উত্তর) ছাত্রদল সদস্য সচিব এইচ এম রনি, যুগ্ম আহবায়ক আবদুল্লাহ আল মামুন, রাজাপালং ইউনিয়ন (উত্তর) ছাত্রদল আহবায়ক জিয়াউল হাসান টিপু, যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ জুবায়ের, মো. সাঈদী, সদস্য সালামত উল্লাহ ও রাজা আমিন, রাজাপালং ইউনিয়ন (দক্ষিণ) ছাত্রদল আহবায়ক ইমরান হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক রিদুয়ান, পালংখালী ইউনিয়ন ছাত্রদল আহবায়ক মোহাম্মদ মান্নান, যুগ্ম আহবায়ক রায়হান ও মোহাম্মদ ইসমাঈল, সদস্য আবদুল্লাহ আল মামুন, জালিয়াপালং ইউনিয়ন (উত্তর) ছাত্রদল আহবায়ক মো. দিদার, য্গ্মু আহবায়ক আনছার উল্লাহ, মো. নোমান, মো. জাফর আলম ও মো. ইয়াছিন, জালিয়াপালং ইউনিয়ন (দক্ষিণ) আহবায়ক মো. রফিক উল্লাহ, যুগ্ম আহবায়ক শরিফ উল্লাহ, সদস্য শাহাব উদ্দিন, মোবারক ও মো. ফরহাদ এবং রতœাপালং ইউনিয়ন ছাত্রদল আহবায়ক শাহাদত হোসেন বিপু, যুগ্ম আহবায়ক মো. আরমান, ছুরত আলম, মো. মামুন ও মো. তৌহিদ প্রমূখ।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।