২০ জুন, ২০২৪ | ৬ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জিলহজ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  পাহাড় ধ্বসঃ ৮ রোহিঙ্গাসহ নিহত ১০   ●  উখিয়ার ক্যাম্পে পৃথক পাহাড় ধ্বসে ৭ রোহিঙ্গা সহ নিহত ৯   ●  রামুতে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা   ●  উখিয়া-টেকনাফের ৫ শতাধিক তরুন-তরুণীকে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ‘সুশীলন’   ●  খাদ্যে ভেজাল রোধে সামাজিক আন্দোলন দরকার : খাদ্যমন্ত্রী   ●  ইজিবাইকের ছাদে তুলে ৮ বছরের শিশু নির্যাতন ভিডিও ভাইরাল: তিন অভিযুক্ত গ্রেপ্তার   ●  ভবিষ্যতে প্রেস কাউন্সিলের সার্টিফিকেট ছাড়া সাংবাদিকতা করা যাবে না   ●  একমাসেও অধরা ঘাতক চক্র, চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতি নিয়ে পরিবারে হতাশ   ●  সমুদ্রকেই ঘিরে কক্সবাজারের অর্থনীতি   ●  সামাজিক কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান

সাতক্ষীরায় ঘরে ঢুকে একই পরিবারের চারজনকে হত্যা

সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলায় স্বামী-স্ত্রীসহ দুই শিশু সন্তানকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসী গ্রামে আজ বৃহস্পতিবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন শাহিনুর রহমান (৪০), তাঁর স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩০), ছেলে সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও মেয়ে তাসনিম (৬)।

কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারান চন্দ্র পাল এ খবর নিশ্চিত করে জানান, খলসী গ্রামে নিজেদের বাসায় একটি কক্ষে ঘুমিয়ে ছিল দুই ভাই-বোন সিয়াম ও তাসনিম। এর মধ্যে আজ ভোরে কে বা কারা ওই কক্ষে ঢুকে প্রথমে ভাই-বোনকে গলাকেটে হত্যা করে। এ সময় তাঁদের গোঙানির শব্দ শুনে পাশের কক্ষে থাকা মা সাবিনা খাতুন ও বাবা শাহিনুর রহমান জেগে উঠতেই তাঁদেরও একইভাবে হত্যা করা হয়। পরে দুর্বৃত্ততা বাইরে থেকে শেঁকল দিয়ে দরজা বন্ধ করে পালিয়ে যায়।

শাহিনুরের ছোট ভাই রায়হানুল ইসলাম জানান, ওই বাড়িতে তাঁদের মা ও ভাইয়ের পরিবারের চারজনসহ মোট ছয়জন থাকত। গতকাল বুধবার তাঁদের মা ও বড় ভাই আত্মীয়র বাড়িতে বেড়াতে যান। এর মধ্যে আজ ভোরে বাড়িতে গোঙানির শব্দ শুনে তিনি ছুটে আসতেই দেখেন সবাই মারা গেছে।

রায়হানুল অভিযোগ করেন, পাশের একটি পরিবারের সঙ্গে তাঁদের পরিবারের জমি নিয়ে বিরোধ ছিল। এর জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড হতে পারে বলে ধারণা তাঁর।

এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে রয়েছেন সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার (এসপি) মোস্তাফিজুর রহমানসহ পুলিশের অন্য কর্মকর্তারা।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।