১ জুন, ২০২৩ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ | ১১ জিলকদ, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  বিদগ্ধজনদের নিয়ে বিরূপ মন্তব্য থেকে প্রতিপক্ষকে বিরত থাকার আহবান মেয়র প্রার্থী মাহাবুবের   ●  কক্সবাজার পৌরসভার উদ্যোগে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উদযাপন   ●  কক্সবাজারে ওয়ার্ল্ডফিশ এর সিনার্জিস্টিক পার্টনারশীপ কর্মশালা   ●  সাগরে ইঞ্জিল বিকল হয়ে ১৩ দিন ভাসতে থাকা ২১ জেলে জীবিত উদ্ধার   ●  চকরিয়া ও টেকনাফে শীঘ্রই চালু হচ্ছে কউকের জোনাল অফিস   ●  মরিচ্যায় ভয়ংকর অপহরণকারী সিন্ডিকেট শীর্ষক সংবাদের নিন্দা ও প্রতিবাদ   ●  পেশীশক্তির প্রদর্শন ও হুমকি দিয়ে নৌকা বিজয় ঠেকানোর চেষ্টা বোকামী : মেয়র প্রার্থী মাহাবুব   ●  র‍্যাবের জালে ধরা পড়ল ৯ লাখ ইয়াবাসহ ৫ মাদক কারবারি: যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেপ্তার   ●  ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেল বাবার   ●  হাফেজখানা ও এতিমখানার ৮৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

সাগরে বিকল নৌকাসহ চার জেলেকে উদ্ধার

উদ্ধারনিম্নচাপের কারণে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত পাওয়ার পর গতকাল শনিবার বিকেলে কক্সবাজারের টেকনাফের সেন্ট মার্টিন দ্বীপে ফিরে আসছিলেন চার জেলে। এ সময় তাঁদের মাছ ধরার নৌকার ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। প্রায় ২০ ঘণ্টা পর আজ রোববার বেলা একটার দিকে উখিয়া উপজেলার ইনানী উপকূল থেকে নৌকাটিসহ ওই জেলেদের উদ্ধার করা হয়েছে।
সেন্ট মার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবদুর রব বলেন, ইলিশের প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে ২২ দিন সাগরে মাছ শিকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর শুক্রবার ভোরে তাঁর বড় ভাই মোহাম্মদ ইলিয়াসের মালিকানাধীন নৌকাটি নিয়ে জেলে আবদুর রহমান মাঝি, শামসুল আলম, রহমত উল্লাহ ও মো. আমিন গভীর সাগরে মাছ শিকারে যান। তাঁরা সবাই সেন্ট মার্টিনের বাসিন্দা। শনিবার বিকেলে নিম্নচাপের কারণে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেওয়া হলে গভীর সাগর থেকে তাঁরা সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে রওনা হন। ফেরার পথে বিকেলে ১৬ বাইন এলাকায় পৌঁছার পর নৌকার ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। এরপর তাঁরা মুঠোফোনে যোগাযোগ করে বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান ও নৌকার মালিককে জানান। কিন্তু সাগর উত্তাল থাকায় ওই দিন তাঁদের উদ্ধার করতে যাওয়া সম্ভব হয়নি।ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, আজ রোববার সকাল আটটা পর্যন্ত ওই জেলেদের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ ছিল। মুঠোফোনটি যেকোনো সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে জানিয়ে ওই জেলেরা তাঁদের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছিলেন। সাড়ে আটটার দিকে তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এর আগেই সেন্ট মার্টিন দ্বীপের মোহাম্মদ রফিক ও মীর আহমদের মালিকানাধীন দুটি ট্রলার সাগরে তাঁদের সন্ধানে রওনা দেয়। বেলা একটার দিকে উখিয়ার ইনানী উপকূলের ১২ বাইন এলাকায় বিকল নৌকাটির সন্ধান পাওয়া যায়। ওই চার জেলেই সুস্থ রয়েছেন।
আজ বিকেলে নুর আহমদ বলেন, ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়া নৌকাটি অপর একটি ট্রলারের সঙ্গে রশি বেঁধে টেনে আনা হচ্ছে। আজ রাত আটটার দিকে তাঁরা সেন্ট মার্টিন পৌঁছাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। তিনি জানান, সাগর এখনো উত্তাল থাকায় টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথে আজ বিকেল সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত পর্যটকবাহী জাহাজ ও ট্রলার চলাচল বন্ধ থাকায় সেন্ট মার্টিনে প্রায় দেড় শতাধিক পর্যটক আটকা রয়েছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।