৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২৬ মাঘ, ১৪২৯ | ১৭ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  চট্টগ্রামের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, এমপি মোসলেম উদ্দীনের মৃত্যুতে কক্সবাজার জেলা আ’লীগের শোক   ●  স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের সঙ্গে একান্তে সাক্ষাত এমপি জাফর আলমের   ●  কক্সবাজার সদর হাসপাতালে হয়রানি ও হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন   ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম

শোষিতের অধিকার আদায়ের লক্ষে প্রতিষ্ঠিত হয় ছাত্রলীগ

asek mp
আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেছেন, শিক্ষা, শান্তি ও প্রগতির ধারক বাহক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। মানুষের অধিকার আদায়ের মহান ভ্রত নিয়ে ১৯৪৮ সালের ৪ঠা জানুয়ারি জন্ম নিয়েছিল ছাত্রলীগ। পরবর্তীতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মহান ভাষা আন্দোলন ও মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছে ছাত্রলীগ। এ ছাড়াও ছাত্রলীগের রয়েছে দীর্ঘ ইতিহাস। সেই ইতিহাসকে ধারণ করেই নেতৃত্ব দিতে হবে ছাত্রলীগকে। তিনি গতকাল বেলা ১১টায় মহেশখালী বঙ্গবন্ধু মহিলা কলেজ মাঠে মহেশখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি আগমি নেতৃতের¡ প্রতি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ছাত্রলীগকে আপনারাই এগিয়ে নেবেন। ২০ দলীয় জোটের ষড়যন্ত্র ও মানুষ হত্যার বিরুদ্ধে আপনাদেরই রুখে দাড়াতে হবে। প্রতিটি মানুষের ঘরে ঘরে পৌছে দিতে হবে সরকারের সফলতা। যারা ধর্মকে পুজি করে দেশে বিভ্রান্ত ছড়াতে চায় এ সব অপ-প্রচারকারিদের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষকে সাথে রুখে দাড়াতে হবে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের লেখাপড়ায় মনোযোগী হওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, রাজনীতির পাশাপাশি নেতাকর্মীদের লেখাপড়াও চালিয়ে যেতে হবে। বই, খাতা ও কলমই ছাত্রলীগের প্রধান হাতিয়ার। মেধাবী ছাত্রনেতা সৃষ্টিতে ছাত্রলীগের বিকল্প নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া কামনা করে তিনি বলেন, তিনি আছেন বলেই দেশ একটি মর্যদাশলী রাষ্ট্রে পরিণত হতে যাচ্ছে। না হয় ষড়যন্ত্রকারি ২০ দলীয় জোট দেশকে একটি জঙ্গীরাষ্ট্রে পরিণত করত।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইশতিয়াক আহমদ জয় সম্মেলনের উদ্বোধন করেন। উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক এম আবদুল মন্নানের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক এম আবদুল হাকিমের সঞ্চালনায় অনুষ্টিত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডঃ সিরাজুল মোস্তফা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডাঃ নুরুল আমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এম আজিজুর রহমান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রিয় দপ্তর সম্পাদক শেখ রাসেল। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাসেদ। বক্তব্য রাখেন মহেশখালীর পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ফরিদুল আলম চেয়ারম্যান, যুগ্ম সম্পাদক এডঃ আবু তালেব, ধলঘাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহসান উল্লাহ বাচ্চু, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রিয় নেতা ওসমান গণী, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলী আহমদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের আজাদ, শরীয়ত পুরের ছাত্রলীগ নেতা হানিফ পারভেজ, জেলা ছাত্রলীগ নেতা জালাল উদ্দিন মিঠু, মহেশখালী উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি মোহাম্মদ জাকারিয়া, জেলা যুবলীগের অর্থ সম্পাদক সাজেদুল করিম, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি অধ্যাপক সরওয়ার কামাল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা জাহেদ সিকদার রুমেল, চট্টগ্রাম বিশ্ব বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক সরওয়ার আজম, ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা ছাত্রলীগের বিদায়ী যুগ্ম আহবায়ক হালিমুর রশিদ, মকছুদুল করিম, প্রভাষক এহছানুল করিম, মহেশখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রিদুওয়ান রাসেল ও হারেচ রহমান।
সম্মেলনে ছাত্রলীগের সম্মেলনে সম্ভাব্য সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীরা ব্যাপক শোÑডাউনের মাধ্যমে মিছিলসহকারে সম্মেলন স্থনে প্রবেশ করেন। এ সময় উপস্থিত নেতৃবৃন্দরা হাততালি দিয়ে প্রত্যেক মিছিলকে স্বাগত জানান। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে ৭ জন সভাপতি পদে ও ৭ জন সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসাবে নিজেদের জীবন বৃত্তান্ত দাখিল করেন। পরে সকলের সম্মতিক্রমে কমিটি গঠনের দায়িত্ব জেলা নেতৃবৃন্দ গ্রহন করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।