১৭ এপ্রিল, ২০২৪ | ৪ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৭ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে   ●  ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার,ক্র্যাকের সভাপতি জসিম, সম্পাদক নিহাদ   ●  নতুন জামাতে রঙিন ১০০ শিশুর মুখ   ●  মহেশখালী উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার পাশা চৌধুরীর মৃত্যুতে জেলা আ’লীগের শোক

লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!


নিজস্ব প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের কাছাকাছি জেলা চট্রগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার চুনতির বড়হাতিয়া এলাকায় এক পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে পেট্রোলের আগুনে পুড়িয়ে মারার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। রবিবার রাত ৯ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে পুলিশ কর্মকর্তা খোকন কান্তি রুদ্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
তিনি জানান, চট্রগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার দক্ষিণ বড়হাতিয়া রুদ্রপাড়া, টুডা পুকুর পাড়ের দক্ষিণ পাশে পুলিশ কর্মকর্তার পরিবার পরিজন বসবাস করে আসছিল। রবিবার রাত ৯ টার দিকে স্থানীয় বিজয় রুদ্রের ছেলে  সুমন রুদ্র ও রাজীব রুদ্রের নেতৃত্বে একদল অজ্ঞাত সন্ত্রাসী ‘পূর্ব পরিকল্পিত’ ভাবে তার বাড়ির লাগোয়া খড়ের গাঁদা (কুইজ্জায়) পেট্রোলের আগুন দেন। বিষয়টি বাড়িতে অবস্থানরত লোকজন আগুনের ধুয়া দেখে বাহিরে এসে দেখেন যে সুমন রুদ্র খড়ের গাঁদার পাশ থেকে বের হচ্ছে।  তখন তাকে ধরে ফেললে ওৎপেতে থাকা রাজীব রুদ্র এসে ধস্তাধস্তি করে সুমন রুদ্রকে সহ আগুন লাগানোর জন্য ব্যবহৃত পেট্রোলের জারিকেন নিয়ে  দ্রুত পালিয়ে যায়।
পুলিশ কর্মকর্তা রুদ্র আরও জানান, তৎক্ষানিক বিষয় লোহাগাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবগত করলে তাঁর নির্দেশে  চুনতি পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফারুক আহমদ সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
তিনি জানান, এই ঘটনা নিয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এই প্রসঙ্গে জানতে চাইলে চুনতি পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফারুক আহমদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। তবে কে কারা আগুন দিয়েছে তা এখনো নিশ্চিত নয়।

প্রসঙ্গতঃ পুলিশ কর্মকর্তা খোকন কান্তি রুদ্র কক্সবাজারের চকরিয়া চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে উপ-পরিদর্শক (এসআই) হিসাবে কর্মরত আছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।