২০ এপ্রিল, ২০২৪ | ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

রোহিঙ্গাদের ধর্মান্তরের চেষ্টার প্রতিবাদে টেকনাফে মানব বন্ধন

Teknaf pic_kitabul mukaddas (6)
টেকনাফে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন প্রলোভনে ফেলে ধর্মান্তরিত করার চক্রান্তের প্রতিবাদে মানব বন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়েছে।
২৯ মার্চ দুপুরে সচেতন মুসলিম উম্মাহর ব্যানারে উপজেলা কমপ্লেক্স এলাকায় মানববন্ধন ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে স্মারকলিপি প্রদান করে। উল্লেখ্য টেকনাফে ৩৩ মুসলিম রোহিঙ্গা নারী-পুরুষকে কৌশলে ধর্মান্তরিত করার চেষ্টার অভিযোগ এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। টেকনাফ থেকে দালালদের মাধ্যমে এসব নারী-পুরুষকে ”ট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার কালিপুর ইউনিয়নের গুনাগরি এলাকায় দিশারী ক্যাম্প নামে একটি এনজিও সংস্থার ট্রেনিং ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে খৃষ্টান ধর্মীয় বিভিন্ন বিষয়ে আলোকপাতের পর কিতাবুল মোকাদ্দস নামে একটি গ্রন্থ ধরিয়ে দেওয়া হয়। গত ১৮ মার্চ তাদেরকে হাঁস-মুরগী পালনের প্রশিক্ষনের নামে টেকনাফের পল্লানপাড়া, কায়ুকখালীপাড়া থেকে ১৭ জন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ৯ জন, বাহারছড়ার শামলাপুর এলাকার থেকে ৭ জন ৩৩ জনকে সেখানে নিয়ে যাওয়া হয়। এদের মধ্যে টেকনাফ পুরান পল্লানপাড়ার বসবাসকারী ছৈয়দ আলম ও তার স্ত্রী মোমেনা (২৮), কালা মিয়ার ছেলে মোঃ হারুন প্রকাশ বাইল্লা (৩৫), ইয়াছিনের স্ত্রী  মরিয়ম খাতুন ময়ুরী (৫০), আবদুর রশিদের স্ত্রী সনজিদা (৪০), সালেহ আহমদের স্ত্রী বেলুজা (৬০), কাদের হোছনের স্ত্রী ফিরোজা (৫০), হাফেজ আহমদ (৫০), মোঃ আলম (১৫), বেগনী (৫০), নুর জাহান (৪৫)সহ ৩৩ জনকে নিয়ে ৩দিন তাদের সেখানে রেখে উক্ত ধর্মের আচার্য্য শিখানো হয়। পরে তারা টেকনাফে ফিরে আসার প্রায় ২ সপ্তাহ পর এক পর্যায়ে এঘটনা ফাঁস হয়ে গেলে সর্বত্র তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এদিকে বাশঁখালীল দিশারী ক্যাম্পের ইনচার্জ রুবেল তালুকদারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ ঘটনার সাথে তাদের কোন সম্পর্ক নেই মার্টিন মন্নান মৃধা নামে এক ব্যক্তি “ওয়ে অব পিচ ট্রাস্ট” নামে একটি সংগঠনের নামে প্রশিক্ষনের জন্য তাদের ভেন্যুটি ভাড়া নিয়েছিল। আর ৮২ সেনপাড়া, মিরপুর-১০, ঢাকা তাদের কার্যালয়। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মার্টিন মন্নান শাহীন নামের এক ব্যক্তির মাধ্যমে টেকনাফে লেদা রোহিঙ্গা বস্তিসহ বিভিন্ন এলাকায় বসবাসকারী রোহিঙ্গাদের টার্গেট করে ধর্মান্তরের এ প্রক্রিয়া শুরু করেন। এব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মোজাহিদ উদ্দিন সংবাদকর্মীদের বলেন বিষয়টি জানার পর প্রাথমিকভাবে খোঁজ খবর নিয়ে এর সত্যতা পাওয়া গেছে। এব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানানো হয়েছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।