২০ জুন, ২০২৪ | ৬ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জিলহজ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  পাহাড় ধ্বসঃ ৮ রোহিঙ্গাসহ নিহত ১০   ●  উখিয়ার ক্যাম্পে পৃথক পাহাড় ধ্বসে ৭ রোহিঙ্গা সহ নিহত ৯   ●  রামুতে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা   ●  উখিয়া-টেকনাফের ৫ শতাধিক তরুন-তরুণীকে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ‘সুশীলন’   ●  খাদ্যে ভেজাল রোধে সামাজিক আন্দোলন দরকার : খাদ্যমন্ত্রী   ●  ইজিবাইকের ছাদে তুলে ৮ বছরের শিশু নির্যাতন ভিডিও ভাইরাল: তিন অভিযুক্ত গ্রেপ্তার   ●  ভবিষ্যতে প্রেস কাউন্সিলের সার্টিফিকেট ছাড়া সাংবাদিকতা করা যাবে না   ●  একমাসেও অধরা ঘাতক চক্র, চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতি নিয়ে পরিবারে হতাশ   ●  সমুদ্রকেই ঘিরে কক্সবাজারের অর্থনীতি   ●  সামাজিক কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান

মুমিনের বসন্তকাল

Ramadan-thereport24

আজ সোমবার পবিত্র রমজানের ৪র্থ দিবস। মূলত হিজরি সনের নবমতম মাস রমজান। পৃথিবীর সবখানেই ঋতু গণনায় বসন্তের একটা আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এই ঋতু প্রত্যেকের জন্য প্রশান্তির প্রতীক। এসময় প্রকৃতি সাজে বৈচিত্র্যময়তায়। এর স্তুতিগাথায় নিজেকে নিবেদন করে সৃজনশীল মানুষেরা। তেমনি রমজান হচ্ছে মুমিনের বসন্তকাল। এটি ইবাদতের মৌসুম। মুমিন বান্দার জন্য পরম স্বস্তির প্রতীক। বান্দা নিজেকে নিবেদন করে আল্লাহ জাল্লা শানুহুর কাছে। আর এই নিবেদনের পুরস্কার হিসেবে সে পেতে চায় একান্ত আরাধ্য জান্নাত বা বেহেশত।

রমজ ধাতু থেকে রমজান শব্দের উৎপত্তি। রমজান অর্থ জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ভস্ম করে দেয়া। যে মাসে মানুষের রিপুসমূহ যেমন- কাম, লোভ, মোহ ও ভোগের মানসিকতাকে জ্বালিয়ে ছাই করার ব্যবস্থা রয়েছে, তাই রমজান মাস। রমজানকে যারা সেভাবে কাজে লাগাতে পারল তারা সফল হল। আর যারা সেভাবে আত্মসংশোধন করতে পারল না তারা বড়ই দুর্ভাগা। তাদের সিয়াম সাধনা যেন কোনো কাজেই আসল না।

আল্লাহর রাসূল (সা.) বলেন, “রমজান মাসে যে একটি ভাল কাজ করবে সে যেন একটি ফরজ আদায়ের কাজ করল আর যে একটি ফরজ আদায় করল সে যেন ৭০টি ফরজ আদায় করল। এ মাস ধৈর্য ও সহানুভূতিশীল হওয়ার মাস।”

প্রিয় পাঠক, রমজান নিয়ে বাংলা ব্লগে কিছু তরুণ শ্লেষের সাথে উল্লেখ করেছেন তাদের বেদনার কথা। তারা বলতে চেয়েছেন সমাজের অসঙ্গতি নিয়ে। বলছেন, রোজার মাসে যে মানুষটি রোজা রাখছেন, সেই আবার সব থেকে মিথ্যা কথা বলছেন। ওজনে কম দিচ্ছেন। মজুদদারি করে ফড়কা আয় করছেন। কোনো কোনো তরুণ সারারাত ধরে বিভিন্ন কায়দায় নগ্ন মুভি দেখছেন। জেনা ব্যভিচার করছেন। এত সব কায়-কারবারের পরও সে রোজাদার। এমন মানুষের মুখোশ উন্মোচন করতে গিয়ে ব্লগে তারা তাদের পরিচিত কিছু উদাহরণ ও নাম সন্নিবেশ করে বিষয়ের সত্যতার প্রমাণের চেষ্টা করেছে। আসলে সমাজের রন্ধ্রে যে পচন তা রোধ করা জরুরি। আপন ভাল হলে পরে জগতও ভাল হবে। এটাই চূড়ান্ত কথা। আপনকে ভাল করতে চাইলে রোজার প্রকৃত শিক্ষায় নিজেকে শামিল করতে হবে। তা নাহলে প্রজন্মের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে নাজেহাল হতে হবে। তাদের কাছে ধর্ম বা রিলিজিয়ন তিক্ত আফিমের মত মনে হবে। এখানে এ মাসে মুসলমানদের করণীয় কিছু বিষয় পয়েন্ট আকারে সন্নিবেশ করা হলো :
১) রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করা, পবিত্রতা রক্ষার জন্য অন্যকে উৎসাহিত করা।
২) ঈমানদারি ও আত্মসমালোচনার সাথে হিসাব করে করে রোজা রাখা।
৩) সকল ধরনের মিথ্যা, পাপ, দুর্নীতি ও অপকর্ম চিরতরে বর্জন করা।
৪) রোজা রমজানের শিক্ষা অনুযায়ী নিজের জীবন পরিবার ও সমাজ গঠনের চেষ্টা করা।
৫) কুরআন পড়া, বুঝা এবং কুরআনের শিক্ষা ও দাবি অনুযায়ী পরিবার এবং সমাজ গঠন করা।
৬) ধৈর্য ও ত্যাগের গুণ অর্জন করা।
৭) গরিব অসহায় মানুষের প্রতি সদয় হয়ে তাদের সাহায্য করা।
৮) আল্লাহর নবী (সা.) রমজান মাসকে রহমত, মাগফিরাত ও মুক্তির মাস ঘোষণা করেছেন তাই সবার উচিত রহমত, মাগফিরাত ও মুক্তি লাভ করার জন্য আন্তরিকভাবে চেষ্টা করা।
৯) অতীতের সকল রকমের ভুল-ত্রুটির জন্য তাওবা করা ভবিষ্যতে ওই ধরনের অন্যায়, ইসলাম, সমাজ, দেশ ও মানবতাবিরোধী কাজে লিপ্ত না হওয়ার কঠিন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা এবং তাওবা ও সিদ্ধান্তের ওপর অটল থাকা।

 

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।