২৫ এপ্রিল, ২০২৪ | ১২ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১৫ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজারে সড়ক দুর্ঘটনা রোধ, শৃংখলা জোরদারের  লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট, জরিমানা   ●  রামুতে নিরাপদ পানি ও উন্নত স্যানিটেশন  সুবিধা পেয়েছে ৫০ হাজার মানুষ     ●  কক্সবাজারে ছাত্রলীগের ৫ লক্ষ গাছ লাগনোর উদ্যোগ   ●  মহেশখালীতে সাংসদের বিরুদ্ধে নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্টের অভিযোগ    ●  জেএস‌আরের বিরুদ্ধে উঠা সকল অভিযোগ কে অপপ্রচার বলে দাবি সভাপতি জসিমের   ●  ‘দশ হাজার ইয়াবা গায়েব, আটক  সিএনজি জিডিমূলে জব্দ   ●  বাংলাদেশ ফরেস্ট রেঞ্জার’স ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা   ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা

ভারতকে ২৮৮ রানের টার্গেট দিল জিম্বাবুয়ে

ছবি : সংগৃহীত

 টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩৩ রানেই তিন উইকেট খুইয়ে ফেললেও অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলরের অনবদ্য শতকে লড়াকু সংগ্রহই করলো জিম্বাবুয়ে। ৪৮.৫ ওভার ব্যাট করে ২৮৭ রান সংগ্রহ করেছে তারা। ফলে জয়ের জন্য ভারতের সামনে টার্গেট দাঁড়ালো ২৮৮ রান।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বেশ ক’টি উইকেট খুইয়ে ফেলে জিম্বাবুয়ে। ৩৩ রানে দুই ওপেনারসহ টপঅর্ডারের তিন উইকেট হারানোর পর ধুঁকতে থাকে টেস্ট খেলুড়ে দলটি। এ অবস্থায় খেলতে নেমে পরিস্থিতি সামলে ৯৩ রানের কার্যকর জুটি গড়েন টেইলর ও শন উইলিয়ামস। দু’জনই প্রায় একইসময়ে অর্ধশতক পূরণ করেন।

দলীয় ১২৬ রানের মাথায় জুটিটি ভাঙেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তার বলে কট অ্যান্ড বোল্ড হওয়ার আগে শন উইলিয়ামস খেলে যান ৫০ রানের ঝলমলে ইনিংস।

উইলিয়ামসের বিদায়ের পর নামেন ক্রেইগ আরভিন। তিনি একপ্রান্ত থেকে অধিনায়ককে যোগ্য সঙ্গ দিয়ে যান। তাকে সঙ্গে নিয়ে আরেকটি শক্ত জুটি গড়েন টেইলর, তোলেন ১০৯ রান। পাশাপাশি পূরণ করেন ব্যক্তিগত শতকও। দলীয় ২৩৫ রানে মোহিত শর্মার বলে শেখর ধাওয়ানের হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে টেইলর খেলেন ১১০ বলে ১৩৮ রানের ঝকঝকে ইনিংস। ৫ ছক্কা ও ১৫ চারের মারে ইনিংসটি সাজান তিনি।

এর মধ্যে ছক্কা হাঁকিয়ে শতক পূরণের পর ছোটখাট একটি ঝড় তোলেন টেইলর। ৪১তম ওভারে রবিন্দ্র জাদেজার কাছ থেকে ২৫ রান আদায় করে নেন তিনি। তবে, ৪২তম ওভারে তার বিদায়ের পর ৪৩তম ওভারে সাজঘরের পথ ধরেন আরভিনও (২৭)। তিনি কট অ্যান্ড বোল্ড হন মোহিত শর্মার বলে।

টেইলর-আরভিনের বিদায়ের পর সিকান্দর রাজা ২১ বলে ২৮ রানের একটি ছোটখাট ইনিংস খেললেও নিয়মিত বিরতিতে ফের উইকেট খোয়াতে থাকে আফ্রিকার দলটি। তিনশ‘র বেশি রানের সম্ভাবনা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত ৪৮.৫ ওভারে ২৮৭ রানে থামে জিম্বাবুইয়ান ইনিংস।

ভারতের হয়ে তিনটি করে উইকেট নেন মোহিত শর্মা, মোহাম্মদ সামি, উমেশ যাদব। এছাড়া, একটি উইকেট নিয়েছেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

গ্রুপ পর্বে উভয় দলের এ শেষ লড়াই নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে শুরু হয় বাংলাদেশ সময় শনিবার (১৪ মার্চ) সকাল ৭টায়। ম্যাচে টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

ভারতের হয়ে প্রথম বোলিং করেন মোহাম্মদ সামি। আর জিম্বাবুয়ের হয়ে ইনিংস গোড়াপত্তন করেন মাসাকাদজা-চিবাবা।

ভারত-জিম্বাবুয়ে ওয়ানডেতে এর আগে ৫৬ বার মুখোমুখি হয়েছে। এর মধ্যে ৪৪ ম্যাচে জিতেছে ভারত। আর ১০ জয় রয়েছে জিম্বাবুয়ের। বাকি দু’টি ম্যাচ টাই হয়েছে।

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ভারত-জিম্বাবুয়ে এর আগে মাত্র একবার মুখোমুখি হয়েছিল। ১৯৯২ বিশ্বকাপে হ্যামিল্টনের সে ম্যাচে ডিএল হাফটনের দলকে হারিয়ে দিয়েছিল আজহার উদ্দিনরা।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।