১৪ এপ্রিল, ২০২৪ | ১ বৈশাখ, ১৪৩০ | ৪ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে   ●  ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার,ক্র্যাকের সভাপতি জসিম, সম্পাদক নিহাদ   ●  নতুন জামাতে রঙিন ১০০ শিশুর মুখ   ●  মহেশখালী উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার পাশা চৌধুরীর মৃত্যুতে জেলা আ’লীগের শোক   ●  পাহাড়ে শান্তি ফেরাতে যৌথ অভিযান   ●  নিরাপদ পেকুয়া গড়তে দলমত নির্বিশেষে সকলকে এক হতে হবে, ড. সজীব

বিএনপি-জামায়াতচক্র আবারও পুরোনো খেলায় মেতে উঠেছে- চকরিয়ায় এমপি জাফর আলম

কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম এমএ বলেছেন- স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি-জামায়াতচক্র আবারও পুরোনো খেলায় মেতে উঠেছে। তারা আগেকার মতোই আগুন-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংঘটিত করে দেশে অরাজকতা সৃষ্টির পায়তারা শুরু করেছে। তবে এসব কর্মকাণ্ড করে আগামীতে আর ক্ষমতায় যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে না। আওয়ামী লীগের প্রত্যেকটি নেতাকর্মী বিএনপি-জামায়াতের যে কোন ধরণের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড কঠোরভাবে প্রতিহত করবে। এজন্য রাজপথে জেগে থাকবে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
এমপি জাফর আলম বলেন, আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ পর্যন্ত চকরিয়া, পেকুয়া ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগের দখলেই থাকবে রাজপথ। কারণ এই সময়ের মধ্যে স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি-জামায়াতচক্র অতীতের মতো রাজপথে জ্বালাও-পোড়াওয়ের রাজনীতির মাধ্যমে পেট্রোল বোমা মেরে জনগণকে পুড়িয়ে মারার রাজনীতি শুরু করবে। এজন্য সেই সাম্প্রদায়িক অপশক্তিতে রাজপথে কঠোরভাবে মোকাবেলা করা হবে।
এমপি জাফর আলম দলীয় নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন- এখন থেকে আগামী নির্বাচন পর্যন্ত চকরিয়া-পেকুয়া-মাতামুহুরীর রাজপথ আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দখলে রাখতে হবে। যাতে বিএনপি-জামায়াত আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠে আগুন-সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে জনগণের ক্ষতি করতে না পারে।
এমপি জাফর আলমের নেতৃত্বে রবিবার (৩০ জুলাই) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিক্ষোভ মিছিল, পথসভায় বক্তব্য দেন। বক্তব্যে চকরিয়া উপজেলা, পৌরসভা আওয়ামী লীগ, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের দায়িত্বশীল নেতাদের উদ্দেশ্যে উপরোক্ত বক্তব্য দেন।
এর আগে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের প্রতিবাদে চকরিয়া পৌরশহরের রাজপথে এমপি জাফর আলমের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল বের করা হয়। এতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় ডুলাহাজারা, খুটাখালী, হারবাং, বরইতলী, লক্ষ্যারচরসহ বিভিন্ন ইউনিয়নেও। ইউনিয়নগুলোর কর্মসূচীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মুছাসহ দলের সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম লিটুর সভাপতিত্বে ও পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লায়ন আলমগীর চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিশেষ বর্ধিত সভায় আরও বক্তব্য দেন চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু মুছা, মোহাম্মদ মুছা, ফিরোজ আহমদ চৌধুরী, ছৈয়দ আলম কমিশনার, ওয়ালিদ মিলটন, নজরুল ইসলাম, চকরিয়া পৌরসভার সাবেক প্যানেল মেয়র বশিরুল আইয়ুব, সিকান্দার বাদশা নাগু সওদাগর, ইউপি চেয়ারম্যান খ ম বুলেট, জামাল হোসেন চৌধুরী, খুটাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জয়নাল আবেদীন, সাধারণ সম্পাদক বাহাদুর হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তাবিত কমিটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা বিআরডিবির চেয়ারম্যান বিশিষ্ট ঠিকাদার আবদুল হাকিম, রণি চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাউছার উদ্দিন কছির, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ হায়দার আলী, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি বশির আলম, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন ধলুসহ সকল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, পৌরসভার সকল ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকবৃন্দ।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।