২০ এপ্রিল, ২০২৪ | ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

অস্ত্র ও ড্রেজার মেশিন জব্দ

বালু খেকোদের হাতে অবৈধ অস্ত্র!

বিশেষ প্রতিবেদক:

এবার কক্সবাজারের উখিয়ায় বালু খেকোদের হাতে অস্ত্রের সন্ধান পেয়েছে আইনশৃংখলা বাহিনী। বিষয়টি নিয়ে খোদ নড়েচড়ে বসেছে শৃঙ্খলবাহিনী।
গত বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত বড়ইতলী এলাকায় শ্বাসরুদ্ধকর এ অভিযান চালিয়ে ওই সব অস্ত্র ও ড্রেজার মেশিন জব্দ করেন উখিয়া উপজেলা প্রশাসন ও বনবিভাগ।

স্থানীয়দের মতে, দীর্ঘদিন ধরে উখিয়া উপজেলার থাইংখালীতে বনের বিভিন্ন স্পটে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে বহু মামলার আসামী চিহ্নিত সন্ত্রাসী মো. রাসেল। সে পশ্চিম কোনার পাড়ার শেখ হাবিবুর রহমানের ছেলে । তার বালুর ডেরায় চলতো নানা অপরাধ। রাসেলের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুললে করা হতো নির্মম নির্যাতন। তার বিরুদ্ধে ১৪ টি হত্যামামলা সহ প্রায় অর্ধশতক মামলা রয়েছে। এতোদিন রাসেলের আস্তানায় বড় কোন অভিযান চালানো হয়নি।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিকালে যৌথ অভিযান চালিয়ে বালু সন্ত্রাসী রাসেলে ডেরায় অভিযান চালিয়ে তার স্থাপনা উড়িয়ে দেয় উখিয়া প্রশাসন ও উখিয়া বনবিভাগ।
অভিযানে ২টি ড্রেজার মেশিন, ২টি লম্বা বন্দুক, বিপুল দেশীয় ধারালো অস্ত্র ও মাদক সেবনের সরঞ্জাম। তবে অভিযানের খবর পেয়ে বালুখেকো ও অপরাধীরা পালিয়ে যায়।
অভিযোগে প্রকাশ, উখিয়া উপজেলায় বিশাল একটি বালু খেকো চক্র রয়েছে। এর মধ্যে উপজেলার মুসার খোলার ভূট্রো, থাইংখালীর খাইরুল ও হরিমারা এলাকায় রেজা মৌলভী। তাদের আস্তানায় অভিযান পরিচালনার দাবি তুলেছে অনেকই।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হোসেন সজিব ও উখিয়া রেঞ্জ অফিসার কাজী শফিউল আলমের নেতৃত্বে এই অভিযান চালানো হয়। এসময় থাইংখালী বিট কর্মকর্তা রাকিব হোসেনসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ও বনকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম বলেন,দীর্ঘদিন ধরে রাসেলের নেতৃত্বে একটি সিন্ডিকেট ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল, আমরা কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. সারওয়ার আলমের নির্দেশে এবং উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী অফিসার ইমরান হোসেন সজিবের নেতৃত্বে অস্ত্র, ড্রেজার মেশিন উদ্ধারসহ একটি অভিযান পরিচালনা করেছি। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী এ ঘটনায় সন্ত্রাসী রাসেলসহ তার বাহিনীর বিরুদ্ধে অস্ত্র ও বন মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।