৩০ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১৬ মাঘ, ১৪২৯ | ৭ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ   ●  সেন্টমার্টিনে রিসোর্ট নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশ দিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর   ●  তত্ত্বাবধায়কের কাছে ভুক্তভোগীর আবেদন চিকিৎসার জন্য টাকা দাবি করলো নার্স, হুমকির অভিযোগ   ●  ডিজিটাল আইল্যান্ডকে স্মার্ট আইল্যান্ডে পরিণত করার পেছনের গল্প রচনা করবে ছাত্রলীগ

পেকুয়া উপজেলা জামায়াতের আমীর আটক

abul kalam
পেকুয়া উপজেলা জামায়াতের আমীর মাষ্টার আবুল কালাম আজাদকে আটক করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার (১৩ মার্চ) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী সবুজ বাজার এলাকা থেকে আটক করে পেকুয়া থানার একদল পুলিশ। পেকুয়া উপজেলা জামায়াতের আমীর মাষ্টার আবুল কালাম আজাদকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে পেকুয়া থানার মো. আবদুর রকিব।  পেকুয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা অধ্যাপক নুরুজ্জামান মনজু জানান, কোন ধরনের মামলা না থাকলেও পেকুয়া জামায়াত আমীর মাষ্টার আবুল কালাম আজাদকে পুলিশ আটক করেছে। তিনি আটক জামায়াত নেতার মুক্তি দাবী করেছেন। এদিকে, পেকুয়া উপজেলা জামায়াতের আমীর বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মাষ্টার আবুল কালাম আজাদকে বিনা মামলায় অন্যায়ভাবে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ ও অবিলম্বে মুক্তি দাবী করে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইমলামী কেন্দ্র্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও জেলা জামায়াতের আমীর মুঃ শাহজাহান এবং সেক্রেটারী ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান জি.এম রহীমুল¬াহ। বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, সরকার গদি রক্ষার কৌশল হিসেবে দেশব্যাপী বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের পাইকারী হারে গ্রেপ্তার করে চলমান গণআন্দোলনকে দমানোর অপচেষ্টা করছে। সরকারের অবৈধ ও অগনতান্ত্রিক কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে ফুসে উঠা সংগ্রামী জনতাকে গ্রেপ্তার করে, গুম-খুন করে দমিয়ে রাখা যাবেনা। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে দিয়ে গদি রক্ষার কৌশল কাজে আসবেনা। নেতৃদ্বয় আরো বলেন, জামায়াত নেতা মাষ্টার আবুল কালাম আজাদ একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি সবসময় এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় ভূমিকা রাখতেন। শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক হিসেবে মাষ্টার কালামের অবস্থান ছিল অগ্রগন্য। এরপরেও সরকার আতংকিত হয়ে এবং আন্দোলন দমনের অপকৌশল হিসেবে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে জামায়াত নেতা মাষ্টার আবুল কালাম সহ গ্রেপ্তারকৃত সকল নেতা-কর্মীর মুক্তি দাবী করছি। পাশাপাশি চলমান গণতান্ত্রিক কর্মসূচী শান্তিপূর্ন ও অহিংসভাবে চালিয়ে যাওয়ার জন্য আমরা সকল নেতা-কর্মীর প্রতি আহবান জানাচ্ছি। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে গণতান্ত্রিক অহিংস আন্দোলনে বেআইনী হস্তক্ষেপ ও উস্কানীমূলক কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকার দৃষ্টি আকর্ষন করছি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।