২০ এপ্রিল, ২০২৪ | ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

পেকুয়ায় সালাহউদ্দিনের সন্ধান ও মুক্তিদাবীতে মহিলাদলের কাফন মিছিল

pic.pekua_mohiladol-28-03-15[1]
কক্সবাজারের পেকুয়ায় নিখোঁজ বি.এন.পির যুগ্ম মহাসচিব সালাহউদ্দিন আহমদের সন্ধান ও মুক্তিদাবীতে উপজেলা মহিলা দলের কর্মীরা মাথায় কাফনের কাপড় বেধে বিক্ষোভ মিছিল সহ ইউনিয়নে বিক্ষোভ মিছল অনুষ্ঠিত হয়েছে।২০দলীয় জোটের মুখপত্র হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে ১০মার্চ থেকে নিখোঁজ হন পেকুয়ার সন্তান সালাহউদ্দিন আহমদ। দীর্ঘ ১৮দিনেও তার কোনপ্রকার সন্ধান না পাওয়ায় গত ২৮ মার্চ বিকালে পেকুয়া উপজেলা মহিলাদলের কয়েকশ নেতাকর্মী মাথায় কাফনের কাপড় বেঁেধ বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি পেকুয়া প্রেসক্লাব চত্বর থেকে বের হয়ে প্রধান সড়ক হয়ে পেকুয়া বাজার পর্যন্ত প্রদক্ষিণ করে মহিলা দলের নেতাকর্মীরা বলেন, আমাদের জান নিয়ে সালাহউদ্দিন আহমদকে ফিরিয়েদিন। মিছিলটি এককিলোমিটার সড়কে প্রদক্ষিণকালে কয়েকদফা আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের বাঁধার সম্মুখীন হয়ে বাকবিত-ার সৃষ্টি হলেও সর্বশেষ পেকুয়া বাজারের আওয়ামীলীগ অফিসের পাশে গিয়ে সমাপ্ত হয়। পেকুয়া উপজেলা মহিলা দলের সভানেত্রী সাবিনা ইয়াছমিন ঝিনু বলেন, মৃত’্যর ভয়দেখিয়ে লাভ নেই আমাদের প্রাণ নিয়ে প্রিয় নেতা সালাহউদ্দিনকে অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দিতে সরকারের প্রতি আহবান  জানান। এদিকে উপজেলার ৭ইউনিয়নে বি.এন.পি ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও মসজিদে মসজিদে খতমে কোরান সহ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। প্রসঙ্গত সালাহউদ্দিন আহমদ নিখোজ হওয়ার পর পেকুয়ায় সংবাদ পৌছলে স্থানীয় বি.এন.পি নেতাকর্মীরা ব্যাপক বিক্ষোভ প্রকাশ করে। এরপর র‌্যাব-বিজিবি সহ অতিরিক্ত পুলিশ পেকুয়ায় মোতায়েন করে ব্যাপক চিরোনী অভিযান চালিয়ে ধরপাকড় অব্যাহত রাখে। পরে বি.এন.পি ও জামায়াত নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৩টি মামলা দায়ের করলে নেতাকর্মীরা গ্রেফতার এড়াতে এলাকা ত্যাগ করে। যৌথ বাহিনীর অব্যাহত অভিযান ও গণগ্রেফতারে একপর্যায়ে পুরো পেকুয়া চকরিয়া পুরুষ শূণ্য হয়েগেলে সালাহউদ্দিন ইস্যূতে আন্দোলন চাঙ্গা করতে পারেনি বি.এন.পি-জামায়াত। মসজিদে মাদ্রাসায় খতমে কোরান মিলাদ রোযাপালন, মান্নত করে পেকুয়া চাকরিয়ায় সালাহউদ্দিনের জন্যে বিশেষ প্রার্থনা এখনো অব্যাহত রাখেছে সালাহউদ্দিনের সমর্থকরা।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।