১ জুলাই, ২০২২ | ১৭ আষাঢ়, ১৪২৯ | ১ জিলহজ, ১৪৪৩


শিরোনাম
  ●  ছাত্রনেতা খোকা বালুখালী ০১ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মনোনীত   ●  কক্সবাজার পৌরসভার উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে ৫ দেশের রাষ্ট্রদূত   ●  কক্সবাজার বিমানবন্দরে ফুলেল ভালবাসায় সিক্ত মেয়র মুজিব   ●  ঈদগাঁও উপজেলা গঠনে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের গেজেট স্থগিত   ●  আরও প্রশস্ত হচ্ছে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়ক   ●  ক্যাম্পে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে দেশীয় অস্ত্রসহ ৬ রোহিঙ্গা আটক   ●  বিশেষ কায়দায় ইয়াবা পাচার, ডিবি বিচক্ষণতায় ধরা পড়লো করিম উল্লাহ   ●  মহেশখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় নারী সহ আহত ৫   ●  আজ জাতীয় আনন্দের দিন- পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান   ●  পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে শাহপুরী হাইওয়ে পুলিশের আনন্দ র‌্যালি

পাহাড়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও ছড়া দখল পরিদর্শনে ইউএনও জাকারিয়া

কক্সবাজার প্রতিনিধি:
কক্সবাজারে পাহাড় কেটে এবং নদী-খাল-ছড়া ভরাট করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ অব্যাহত রয়েছে। এতে বর্ষা মওসুমে লক্ষ লক্ষ মানুষের জন্য ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। এদিকে পাহাড় কেটে অবৈধভাবে নির্মাণাধীন একটি স্থাপনা আংশিক উচ্ছেদ ও ছড়া দখল করে স্থাপনা নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকারিয়া। আজ শুক্রবার বিকালে কক্সবাজার সদর উপজেলা কমপ্লেক্সের পেছনের পাহাড়ে এবং বাইপাস সড়কের জেলগেইট এলাকায় এ কার্যক্রম চালানো হয়। এসময় কক্সবাজার সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ জিল্লুর রহমান সহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কক্সবাজার সদর উপজেলা কমপ্লেক্সের পেছনে পাহাড় কেটে অবৈধভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ করে আসছিল রেজাউল করিম নামের এক ব্যক্তি। অভিযোগ পেয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকারিয়ার নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে আংশিক উচ্ছেদ করা হয়। পরে বাইপাস সড়কের জেলগেইট এলাকায় পাহাড় কেটে ছড়া দখল করে নির্মিত ও নির্মাণাধীন অবৈধ স্থাপনা পরিদর্শন করা হয়।
এসময় পাহাড় কেটে অবৈধভাবে ঝুঁকিপূর্ন বসতি তৈরি ও ছড়া দখল বন্ধে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন ইউএনও। পরিবেশ বিষয়ক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এনভায়রনমেন্ট পিপল এর প্রধান নির্বাহী রাশেদুল মজিদ বলেন, ‘কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে শতাধিক পাহাড় কাটা চলছে। পাহাড় কেটে সমানতালে ঝুঁকিপূর্ন স্থাপনাও নির্মাণ চলছে। এতে সম্ভাব্য পাহাড় ধসের ঝুঁকিতে রয়েছে লাখ লাখ মানুষ। এছাড়া নদী-খাল-ছড়া ভরাট চলছে।’ পাহাড় কাটা ও নদী-খাল-ছড়া-নালা দখল বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানান তিনি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।