২০ জুন, ২০২৪ | ৬ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৩ জিলহজ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  পাহাড় ধ্বসঃ ৮ রোহিঙ্গাসহ নিহত ১০   ●  উখিয়ার ক্যাম্পে পৃথক পাহাড় ধ্বসে ৭ রোহিঙ্গা সহ নিহত ৯   ●  রামুতে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা   ●  উখিয়া-টেকনাফের ৫ শতাধিক তরুন-তরুণীকে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ‘সুশীলন’   ●  খাদ্যে ভেজাল রোধে সামাজিক আন্দোলন দরকার : খাদ্যমন্ত্রী   ●  ইজিবাইকের ছাদে তুলে ৮ বছরের শিশু নির্যাতন ভিডিও ভাইরাল: তিন অভিযুক্ত গ্রেপ্তার   ●  ভবিষ্যতে প্রেস কাউন্সিলের সার্টিফিকেট ছাড়া সাংবাদিকতা করা যাবে না   ●  একমাসেও অধরা ঘাতক চক্র, চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতি নিয়ে পরিবারে হতাশ   ●  সমুদ্রকেই ঘিরে কক্সবাজারের অর্থনীতি   ●  সামাজিক কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান

পর্যটক হয়রানির অভিযোগে দুই ফটোগ্রাফার আটক

বিশেষ প্রতিবেদক:

চাহিদার অতিরিক্ত ছবি উত্তোলন ও ক্যামেরায় পানি লাগার অভিযোগে টাকা দাবি করে পর্যটক হয়রানির অভিযোগে দুই ফটোগ্রাফার আটক করেছে ট্যুরিস্ট পুলিশ।
তারা হলেন, মোঃ গোলাম রাব্বি ও
মোঃ মতিন হাওলাদার।
মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) তাদের আটক করা হয় বলে জানিয়েছেন ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রেজাউল করিম।
তিনি জানান, একজন পর্যটকের ৪০ টি ছবি তোলার মৌখিক চুক্তি করে অতিরিক্ত টাকা দাবি করে ৩১৯ নম্বর ধারী মোঃ গোলাম রাব্বি নামের ফটোগ্রাফার। চাহিদা মাফিক টাকা না দিলে পর্যটকের সব ছবি জোর করে মুছে ফেলে।
ঢাকার নবাবগঞ্জ থেকে আগত পর্যটক মোঃ আশিক রানা (১৯) সাগরে গোসল করতে নামলে ১০৬ নাম্বারধারী ফটোগ্রাফার মোঃ মতিন হাওলাদারের ক্যামেরায় পানি লাগার অভিযোগে পর্যটককে কলার ধরে উপরে নিয়ে যায় এবং ৫ হাজার টাকা দাবি করে। ঘটনাটি দায়িত্বরত ট্যুরিস্ট পুলিশ সসস্যদের নজরে গেলে ফটোগ্রাফারের কাছ থেকে পর্যটককে উদ্ধার এবং ফটোগ্রাফারকে আটক করা হয়।
মোঃ রেজাউল করিম জানান,  ভুক্তভোগী পর্যটক ট্যুরিস্ট পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন। আটক ফটোগ্রাফারের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। তিনি জানান, যে কোন অভিযোগের ব্যাপারে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা নিয়ে থাকে ট্যুরিস্ট পুলিশ।
পর্যটকদের যে কোন অভিযোগ ট্যুরিস্ট পুলিশকে জানানোর অনুরোধ জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রেজাউল করিম।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।