১৯ এপ্রিল, ২০২৪ | ৬ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৯ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

নানা আয়োজনে বান্দরবানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৯৬তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

Bandarban Pic

বান্দরবানে বিভিন্ন কমৃসুচী মধ্যে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৬তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশুদিবস উপলক্ষেব বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টা বান্দরবান জেলা প্রশাসনের আয়োজনে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে শহরের বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রা শেষে বঙ্গবন্ধু মুক্তমঞ্চে শিশু সমাবেশ,আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্টান অনুষ্টিত হয়েছে। আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক মিজানুলহক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্টনের প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা এবং বিশেষ অথিতি ছিলেন পুলিশ সুপার দেবদাস ভট্টাচায্য,পার্বত্য পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মৌমিনুর রশিদ আমিন ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও পার্বত্য জেলা পরিসদ সদস্য কাজী মজিবুর রহমান।
আলোচনা সভায় প্রশাসনের কর্মকর্তরা ও বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও জেলা প্রশাসন তিনদিন ব্যাপী বিভিন্ন কর্মসুচীর আয়োজন করেন। কর্মসুচীর মধ্যে রয়েছে শিশু কিশোরদের বিভিন্ন বিষয প্রতিযোগিতা,দোয়া,মিলাদ মাহফিল,আলোচনা সভা ও সাংস্কতিক অনুষ্টান।
এদিকে আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন,বাঙালির ইতিহাসের এক অনন্য অসাধারণ ব্যক্তিত্ব শেখ মুজিবুর রহমানের পরিচয় এটাই।তিনি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি।স্বাধীন বাংলাদেশে তিনি শোষনহীন,ক্ষুধামুক্ত ও অগ্রসর গণতান্ত্রিক সমাজ গড়তে চেয়েছিলেন।আজকের বাঙালি ও বাংলাদেশে নাগরিকতা তার সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে এক নবতর আন্দোলনের মধ্য দিয়ে অগ্রসর হচ্ছেন। বক্তরা আরোও বলেন,সোনার বাংলা গড়তে হলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধরে রাখতে হবে এবং প্রতিটি কাজে কর্মে বঙ্গবন্ধর আদর্শের প্রতিফলন ঘটাতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ ও জাতির কল্যাণ,শান্তি ও অগ্রগতি নিশ্চিত করা সসম্ভব। শিশুদের মাঝে জাতিরজনকের জীবনাদর্শ বিকশিত করার প্রয়াস চালানোর ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।