১৭ জুন, ২০২৪ | ৩ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১০ জিলহজ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  উখিয়া-টেকনাফের ৫ শতাধিক তরুন-তরুণীকে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ‘সুশীলন’   ●  খাদ্যে ভেজাল রোধে সামাজিক আন্দোলন দরকার : খাদ্যমন্ত্রী   ●  ইজিবাইকের ছাদে তুলে ৮ বছরের শিশু নির্যাতন ভিডিও ভাইরাল: তিন অভিযুক্ত গ্রেপ্তার   ●  ভবিষ্যতে প্রেস কাউন্সিলের সার্টিফিকেট ছাড়া সাংবাদিকতা করা যাবে না   ●  একমাসেও অধরা ঘাতক চক্র, চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতি নিয়ে পরিবারে হতাশ   ●  সমুদ্রকেই ঘিরে কক্সবাজারের অর্থনীতি   ●  সামাজিক কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা স্মারক প্রদান   ●  ডা.আবু বকর ছিদ্দিক এর চতুর্থ  মৃত্যুবার্ষিকী শনিবার    ●  কক্সবাজারে আইএসইসি প্রকল্পের অধীনে যুবক-যুবতীদের প্রশিক্ষণ ও সনদ বিতরণ    ●  কক্সবাজারে শ্রেষ্ঠ সার্কেল রাসেল, ওসি মুহাম্মদ ওসমান গনি 

নাইক্ষ্যংছড়ি বর্ডারে মস্তক বিহীন মরদেহ উদ্ধার

বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তে আলোচিত সেই বিজিবি সদস্য মিজান হত্যাকান্ডস্থল পাইনছড়ি থেকে আরো অন্তত ৫কি:মি দূরে বর্ডার এলাকা থেকে মস্তক বিহীন একটি মরদেহ উদ্ধার করেছে বিজিবি-পুলিশ। গত কয়েক দিন ধরে ‘একটি লাশ’ পানিতে ভাসছে এ সংবাদের প্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে টানা ২৪ ঘন্টা অভিযান শেষে শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে মস্তক বিহীন এ মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। তবে উদ্ধাকৃত মরদেহটি মাথাসহ অধিকাংশ পচেঁ যাওয়ায় পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
দোছড়ি ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আলী জোহার জানান, গত ৪/৫ দিন যাবত একটি লাশ সীমান্তের ৫২-৫৩নং পিলারের পাইনছড়ি এলাকার অদূরে পাহাড়ী ঝিড়িতে ভাসছে এমনই খবর ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। এ খবরের সূত্র ধরে বৃহস্পতিবার দুপুরে নাইক্ষ্যংছড়ি ৩১ বিজিবি অধিনায়ক লে.কর্ণেল মো: হাসান হাসান মোরশেদ পিএসসি জি প্লাস এর নির্দেশনায় এডি মোশারফ হোসেন এর নেতৃত্বে বিজিবি ও নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশের এসআই কাজী সোলতান উদ্দিন আহসান এবং এএসআই উগ্যজাই মার্মার নেতৃত্বে যৌথ বাহিনী ঘটনাস্থল পাইনছড়ির উদ্দেশ্যে অভিযান শুরু করে। বৃহস্পতিবার রাতে তারা চাইউং পাড়া নামক এলাকা পর্যন্ত পৌছতে সক্ষম হন। গতকাল শুক্রবার সকালে এই উপজাতীয় পল্লী থেকে আরো অন্তত ৪/৫ কি:মি পূর্বে পাইনছড়ি খালের আগার উদ্দেশ্যে রওনা হন অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া বিজিবি-পুলিশ। এসময় স্থানীয় জনৈক লালু ও উহ্লামং নামে দুই সীমান্তের নাগরিক বিজিবিকে সহযোগিতা করেন। সর্বশেষ গতকাল শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে অভিযান দলটি মস্তক বিহীন ঐ মরদেহটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন। এ সংবাদ লিখা পর্যন্ত উদ্ধাকৃত মরদেহটি (গতকাল সন্ধ্যা ৭টায়) পাইনছড়ি নদী হয়ে উপজেলা সদরের উদ্দেশ্যে আনা হচ্ছিল।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে, নাইক্ষ্যংছড়ি ৩১ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে.কর্ণেল মো: হাসান মোরর্শেদ পিএসসি জি প্লাস বলেন- সীমান্ত এলাকা থেকে একটি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তবে লাশটি না দেখার আগে কিছু বলা সম্ভব নয়।
সীমান্তে অজ্ঞাতনামা লাশ দেখা যাওয়ার খবরে পেয়ে বিজিবির পাশাপাশি একজন এসআই ও একজন এএসআই ঘটনাস্থলে পাঠানো হয় বলে স্বীকার করেন নাইক্ষ্যংছড়ি থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: আবুল খায়ের।
উল্লেখ্য এর আগে গত ০৪ মে বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তের পাইনছড়ির ওপারে মিয়ানমারের অভ্যান্তরে রায়বুনিয়া নামক এলাকায় গুলাগুলির বিকট শব্দ শুনা যায় বলে জানিয়েছিলেন স্থানীয়রা। এর ২/৩দিন পর পাহাড়ী ঝিরিতে লাশ দেখা যাওয়ার ঘটনাটি স্থানীয়দের মাঝে নানান প্রশ্ন ও সন্দেহ দেখা দিয়েছে। স্থানীয়রা ধারনা করছেন, মরদেহটি পার্শ্ববর্তী কোন এলাকার হয়ে থাকলে সহজেই খবর নিশ্চিত হওয়া যেত। উদ্ধাকৃত মরদেহটি সীমান্তের কোন অপরিচিত বিচ্ছিন্নতাবাদী দলের সদস্য হতে পারে বলেও মন্তব্য করেছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।