৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২০ মাঘ, ১৪২৯ | ১১ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

দুনিয়া ব্যাপী মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে সুগভীর যড়ষন্ত্র চলছে

ramu pic 14.03.15
রামুতে ঐতিহাসিক ইসলামী সম্মেলনের সমাপনি দিবসে প্রধান অতিথি মাওলানা ড.আ.ফ.ম খালিদ হোসেন বলেছেন, বিশ্বব্যাপী মুসলিম উম্মার অগ্রযাত্রা, উন্নতি ও সমৃদ্ধ ঠেকানোর জন্য সাম্রাজ্যবাদীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে উঠেছে। চর্তুমূখী সাড়াশি কালসাড়ার করভারসন চালানো জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তারা মুসলিম উম্মাহকে ধবংস করার লক্ষ্যে আমাদের ভ্রাতৃত্ববোধ সু-সংহতী বিনষ্ট করে দ্বিধা বিভক্ত করতে চায়। দ্বিধাবিভক্তির পরিকল্পনায় নতুন করে ক্রুসেড়ের পরসা বশছে মধ্য প্রাচ্যের বাজারে। এই ক্রুসেড়ের আওতায় এবার পুরো মধ্য প্রাচ্যের ভূগোলকে ব্যবহার করবে। এখনো সময় আছে তওবা করে কুরআন সুন্নাহর পথে এগিয়ে আসতে হবে সবাইকে। গতকাল ১৪ মার্চ শনিবার রামু খিজারী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের ষ্টেডিয়ামে ইসলামী সম্মেলন পরিষদ রামুর উদ্যোগে মাওলানা মোক্তার আহমদ, মাওলানা আবুল হোসেন ও মাওলানা আমান উল্লাহ সিকদারের সভাপতিত্বে এস.মোহাম্মদ হোসেন, মাওলানা কামাল হোসেন, মাওলানা জসিম উদ্দিন এর সঞ্চালনায়  আয়োজিত সমাপনি দিনে তাকরির পেশ করেন, বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ হযরত মাওলানা গাজী ইয়াকুব ওসমানী,ঢাকা, ইসলামী গীতিকার ও সুরকার অনলবর্ষী বক্তা মাওলানা আমিনুল ইসলাম, কুমিল্লা, মাওলানা ইমাম জাফর আলম সাহেব, অফিসের চর এমদাদিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাসার মুহতামিম আল্লামা মুফ্তি মোর্শদুল আলম চৌধুরী, মাওলানা আব্দুল হান্নান, মাওলানা রফিক বিন আব্দুল মাজেদ। উপস্থিত ছিলেন, আবুল কাশেম এ.কে খাঁন, মাওলানা আমিন উল্লাহ ছিদ্দিকী, মাওলানা আবদুস ছালাম কুদসি, হাফেজ আবু বকর ছিদ্দিক, মাওলানা কাজী এরশাদুল্লাহ, সংবাদকর্মী আবুল কাশেম সাগর প্রমূখ। বক্তারা আরো বলেন, ব্যক্তি পরিবার সমাজ ও রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে শান্তি প্রতিষ্ঠায় ইসলামের কালজয়ী আদর্শ বাস্তবায়নের কোন বিকল্প নেই। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সন্ত্রাসবাদ ও কতিথ জঙ্গীদের উৎতান ঘটে অথবা রটে মূলত পশ্চিমা দুনিয়ার প্রত্যক্ষ পরোক্ষ কল্যাণে এবং  সাম্রাজ্যবাদীদের মদদে। এ দেশে সন্ত্রাস ও জঙ্গী তৎপরতা বন্ধ করতে হলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ভিত্তিক বহুমুখী ইসলামী শিক্ষার প্রসার ঘটাতে হবে। ইসলামের বিরুদ্ধে কোন স্বার্থবাদীদের কারসাজি তৌওহীদি জনতা সফল হতে দিবে না। সকাল ১০টায় ইসলামী সম্মেলন পরিষদের উদ্যোগে ইসলামী তাহযির ও তীমাদ্দুনিক প্রতিযোগিতা আহবায়ক এস মোহাম্মদ হোসন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। এতে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন  মাওলানা কামাল হোসাইন, শিক্ষক চাকমারকুল মাদ্রাসা ও মাওলানা শামসুল হক, খতিব কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।