২৮ নভেম্বর, ২০২১ | ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ | ২২ রবিউস সানি, ১৪৪৩


শিরোনাম
  ●  চিটাগাং চেম্বার ও কক্সবাজার চেম্বারের সমঝোতা স্মারক   ●  আবেগ; মো. আলী আশরাফ মোল্লা   ●  কক্সবাজারে শ্রীলঙ্কার আবহ এনেছে ‌’সী পার্ল শ্রীলঙ্কান ফুড ফেস্টিভ্যাল’ : শ্রীলঙ্কান হাইকমিশনার   ●  বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় পরিচালনা পর্ষদের পরিচালক নির্বাচিত হলেন মোহাম্মদ নুরুল আলম   ●  সাবেক ছাত্রনেতা সাংবাদিক ফরহাদ ইকবাল এর জন্মদিন আজ   ●  উখিয়ার পালংখালী ইউপির তথ্য সেবা উদ্যোক্তা ইয়াবাসহ আটক   ●  শোষণ নয় সেবাই একমাত্র আমার লক্ষ্য : মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী রুবিনা আক্তার   ●  জেল থেকে ভিডিও কলে ভোটের প্রচার!   ●  কক্সবাজার দোকান মালিক সমিতি ফেডারেশনের বার্ষিক সাধারণ সভা সম্পন্ন   ●  বেপরোয়া হয়ে উঠেছে ঝিলংজার ইউপি সদস্য নাছির উদ্দিন

তাৎপর্যপূর্ণ লায়লাতুল কদর আজ

আজ ১৪৪২ হিজরির ২৬তম রমজান। আজ দিবাগত রাতে লাইলাতুল কদর বা শবে কদর। হজরত আয়শা (রা.) নবিয়ে করিম (সা.) কে জিজ্ঞেস করেন যে, ইয়া রাসুলাল্লাহ (সা.) আমি যদি ভাগ্যক্রমে শবে কদরের রাত পেয়ে যাই, তাহলে কী দোয়া পাঠ করবো। আল্লাহর রাসুল (সা.) আয়শা (রা.)কে বলেন, এই দোয়া পাঠ করিও। আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফউন, তুহিব্বুল আফওয়া ফাফু আন্না। অর্থাত্ হে আল্লাহ তুমি বড় ক্ষমাশীল, আমাকে ক্ষমা করো। শবে কদরের রাতে মহান আল্লাহর কাছে বেশি করে খালিছ তাওবা করা উচিত। শবে কদরের রাত থেকে অনেক মহিলা ইতিকাফে বসতে চান। তাই কোনো মহিলা যদি ইতিকাফে বসতে চান, তাহলে তার হাজবেন্ড যেন তাকে খুশি মনে ইতিকাফে বসার অনুমতি দান করেন। মহিলাদের নিজ গৃহকোণে ইতিকাফে বসতে হবে। শবে কদরের রাত থেকে অনেক পুরুষও ইতিকাফে বসতে চান। মহান আল্লাহ পাক সবার ইতিকাফ এবং মহান আল্লাহর নিকট খালিছ তাওবাকে কবুল করুন।

রাসুলে পাক সা. বলেন, লাও লাম তুজনিবু লাযাহাবাল্লাহু বিকুম ওয়া লিজায়া বিকাওমিন ইয়ুযনিবুনা ফাইয়াসতাগফিরুনাল্লাহু ফাইয়াগফিরুলাহুম। অর্থাত্ তোমরা যদি গোনাহ না করো, তবে আল্লাহ পাক তোমাদের সরিয়ে দেবেন এবং সে স্থলে এমন জাতি সৃষ্টি করবেন যারা গোনাহ করবে। অতঃপর আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইবে। তখন তিনিও তাদেরকে ক্ষমা করে দেবেন। (মুসলিম) মহান আল্লাহর কাছে তাওবাহ করতে দেরি করা এবং গোনাহের কাজে অটল থাকা মহা বড় পাপ। তাওবা কবুল হওয়ার শর্তাবলি। এক. সংশ্লিষ্ট গোনাহের কাজটিকে সম্পূর্ণরূপে পরিত্যাগ করা। দুই. কৃত পাপের কারণে মহান আল্লাহর কাছে লজ্জিত হওয়া। ভবিষ্যতে পুনরায় উক্ত পাপে লিপ্ত হবে না, এ কথার ওপর দৃঢ় অঙ্গীকার করা। তাওবার ক্ষেত্র চার ভাগে বিভক্ত।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।