১৯ এপ্রিল, ২০২৪ | ৬ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৯ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

ঢাকা-কক্সবাজার সরাসরি রেল যোগাযোগ

Untitled-1.psd

রেলপথ মন্ত্রী মো. মুজিবুল হক বলেছেন, পর্যটন নগরী কক্সবাজার-ঢাকা সরাসরি রেল যোগাযোগ চালু করা হবে। তিনি বৃহস্পতিবার সংসদে সরকারি দলের সদস্য বেগম ওয়াসিকা আয়শা খানের এক প্রশ্নের জবাবে আরো বলেন, এ ব্যাপারে সরকারের পরিকল্পনাও রয়েছে। বাসস বাংলা অনলাইন।

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত রেল লাইন সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ‘দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার এবং রামু থেকে মায়ানমারের নিকটে গুনদুম পর্যন্ত সিঙ্গেল মিটারগেজ ট্র্যাক নির্মাণ’ প্রকল্প গত ২০১০ সালের ৬ জুলাইয়ে একনেকে অনুমোদিত হয়। সম্পদের সীমাবদ্ধতার কারণে এতদিন প্রকল্পের কাজের তেমন অগ্রগতি সাধিত হয়নি।

রেলপথ মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর চীন সফরের সময় দোহাজারী-রামু-কক্সবাজার এবং রামু-গুনদুম পর্যন্ত মিটারগেজের স্থলে ডুয়েলগেজ রেল লাইন নির্মাণ প্রকল্প চীন সরকারের অর্থায়নে বাস্তবায়নের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

সে প্রেক্ষিতে এডিবি’র অর্থায়নে চলমান ‘টেকনিক্যাল এসিটেন্স ফর সাব রিজিওনাল রেল ট্রান্সপোর্ট প্রজেক্ট প্রিপারেটরী ফ্যাসিলিটি’ শীর্ষক কারিগরি সহায়তা প্রকল্পের আওতায় মিটারগেজ রেললাইনের পরিবর্তে ডুয়েলগেজ রেললাইনের সংস্থান রেখে ‘আপডেটিং ফিসিবিলিটি স্টাডি, ডিটেইল ডিসাইন এন্ড টেনডারিং সার্ভিস’-এর কাজ সম্পন্ন করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। পরিবর্তিত ‘স্কপ’ অনুযায়ী সমীক্ষার কাজ শেষ পর্যায়ে রযেছে।

মন্ত্রী বলেন, আলোচ্য প্রকল্পের ডিপিপি সংশোধনের কাজ চলমান রয়েছে। সংশোধিত ডিপিপি অনুমোদিত হওয়ার পর প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে।

তিনি বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হওয়ার পর রাজধানী ঢাকা থেকে পর্যটন নগরী কক্সবাজার পর্যন্ত ট্রেন সার্ভিস চালু করা সম্ভব হবে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।