২০ এপ্রিল, ২০২৪ | ৭ বৈশাখ, ১৪৩১ | ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজার পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তারিকুলের বরণ ও উপ-সহকারি প্রকৌশলী মনতোষের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত   ●  জলকেলি উৎসবের বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শনে মেয়র মাহাবুব   ●  উখিয়া সার্কেল অফিস পরিদর্শন করলেন ডিআইজি নুরেআলম মিনা   ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে

টেকনাফে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাগানের গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী চক্র

Teknaf Pic-(A)-15-03-15.psd
টেকনাফের হ্নীলায় একটি প্রভাবশালী চক্র অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ব্যক্তি মালিকানাধীন বাগানের গাছ-পালা কেটে নেওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। ভূক্তভোগীরা এই ব্যাপারে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আন্তরিক সহায়তা কামনা করেছেন।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ১৫ মার্চ ভোররাতে টেকনাফের হ্নীলা ১নং ওয়ার্ড আলী আকবর পাড়ার মৃত নজির আহমদের পুত্র রশিদ আহমদ, সরওয়ার কামাল ও নুরুল কবিরের মালিকানাধীন সৃজিত বাগানের গাছ জোরপূর্বক স্থানীয় মৃত আব্দুল মাবুদ মাষ্টারের পুত্র শফিক মাষ্টার,মোক্তার আহমদ,মাষ্টার শফিকের পুত্র নাসির,কাশেম,মৃত কবির উকিলের ছেলে সাইফুল,সোলতান, সিরাজ এবং স্বশস্ত্র স্থানীয় ভাড়াটে সন্ত্রাসী হাসান আহমদের পুত্র লাল মিয়া,তার ছেলে ধলাইয়া, মৃত ছগির আহমদের পুত্র জয়নালসহ আরো ১০/১২জনকে দিয়ে জোরপূর্বক ব্যক্তি মালিকানাধীন বাগানের গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। এই চক্রটি গত ১ সপ্তাহে বাগানের বড় বড় ৮টি একাশি ও গামারী গাছ কেটে নিয়ে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে। এই ব্যাপারে স্থানীয় হ্নীলা বাজার কমিটির নিকট সালিশ দেওয়া হলেও অবৈধ অস্ত্রধারীরা তা উপেক্ষা করে বাগানের মূল্যবান গাছ কেটে লুটপাট অব্যাহত রেখেছে। এই ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আন্তরিক সহায়তা কামনা করেছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।