২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১৯ মাঘ, ১৪২৯ | ১০ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

টেকনাফে নাশকতা ও চোরাচালান দমনে বিজিবির বিশেষ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

Teknaf Pic-(A)-12-03-15
বর্তমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে যাত্রীবাহী বাস, সকল প্রকার পণ্যবাহী ট্রাক, চান্দেরগাড়ী ও অন্যান্য যানবাহন নিরাপদে চলাচল এবং যে কোন ধরণের নাশকতা ও চোরাচালান রোধকল্পে বিজিবি,স্থানীয় প্রশাসন ও পরিবহন মালিক সমিতির সমন্বয়ে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সুত্র জানায়,১২ মার্চ সকাল সাড়ে ১১ টায় টেকনাফ ৪২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের ব্যবস্থাপনায় ব্যাটালিয়ন সদর অপসরুমে দেশের বর্তমান আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে পেট্রোল বোমার বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি ও তা রোধে বিজিবি, স্থানীয় প্রশাসন ও পরিবহন মালিক সমিতির সমন্বয়ে এক সমন্বয় সভা ৪২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আবু রাসেল সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদ ইকবাল,টেকনাফ মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ আতাউর রহমান খন্দকার,টেকনাফের যাত্রীবাহী বাস, ট্রাক, চান্দের গাড়ী ও অন্যান্য যানবাহন মালিক সমিতির সভাপতি/সেক্রেটারী সভায় উপস্থিত ছিলেন।  বর্তমান বিরাজমান পরিস্থিতির আলোকে পেট্রোল বোমার বিরুদ্ধে সচেতনতা বৃদ্ধি ও তা রোধে কক্সবাজার হতে টেকনাফগামী, চট্রগ্রাম, ঢাকাগামী বাস, মিনিবাস, ট্রাক, মিনি ট্রাক, টেম্পু, চান্দের গাড়ী, মাইক্রোবাস ও সিএনজিতে যাত্রীগণ কিভাবে নিরাপদে যাতায়াত করতে পারে সেই ব্যাপারে উপস্থিত সকলের মতামত-পরামর্শের ভিত্তিতে (ক) যেসব জায়গায় পেট্রোল বোমা হামলা হচ্ছে বা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এ সকল স্থানসমূহে অনতিবিলম্বে চিহ্নিত করণ এবং একই স্থানে সম্ভাব্য হামলাকারী সর্ম্পকে গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করতঃ আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সমূহকে অবগত করা।
(খ) সকল পেট্রোল বোমার আক্রমণ সাধারনতঃ গভীর রাতে বা রাতের শেষ অংশে পরিচালিত করা হয়েছে। তাই রাত্রিকালীন দুরপাল্লার যাত্রীবাহী যান গন্তব্যে গমনাগমন না করে যতটা সম্ভব দিনের আলোর মধ্যে বা রাতের প্রথম অংশের মধ্যেই বাসসমূহ নিজ গন্তব্যে পৌছাতে সক্ষম হয় সেই ভাবেই যাত্রার পরিকল্পনা গ্রহন করা।
(গ) সকল ট্রাক/মালামাল পরিবহনকারী ভ্যান তাদের গাড়ীর উইন্ডশীডে নেট অথবা লোহার খাঁচা সদৃশ্য একটি আবরণ তৈরী করবে যেন গাড়ীর উইন্ডশীন্ডের উপর নিক্ষেপকৃত পেট্রোল বোমা উইন্ডশীন্ড ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ না করে।
(ঘ) সকল যাত্রীবাহী বাস তাদের গাড়ীর উইন্ডশীন্ডের ভিতরের দিকে শক্ত টেপ জাতীয় দ্রব্যের তৈরী একটি প্লাষ্টিকের আঠাযুক্ত পর্দ স্থাপন করবে যেন পেট্রোল বোমার আগাতে উইন্ডশীন্ডের কাঁচ ভেঙ্গে গেলেও ভাঙ্গা কাচের টুকরা বা পেট্রোল বোমা গাড়ীর ভিতরে প্রবেশ না করতে পারে। এছাড়াও চলাচলের সময় বাসের জানালাসমূহ বন্ধ রাখা এবং জানালার ভিতরের দিকে ক্যানভাস বা মোটা কাপড়ের তৈরী পর্দা (যা সহজে আগুনে ধরে না) শক্ত রিং এর সাহায্যে এমন ভাবে লাগানোর ব্যবস্থা করা যেন বাসের জানালায় নিক্ষেপকৃত পেট্রোল বোমা কাচ ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ না করতে পারে।
(ঙ) এখন হতে পরিবহন মালিক সমিতি কর্তৃক নিয়োগকৃত কোন ড্রাইভার,কন্ট্রাক্টর ও হেলপারদের ইয়াবাসহ অন্যান্য অবৈধ মালামাল পাচারের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে বলে সন্দেহ হলে মালিকপক্ষ কর্তৃক তাদেরকে চাকুরী হতে তাৎক্ষণিকভাবে অপসারণ করতঃ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবগত করবে। মালিকপক্ষ গাড়ীতে নিয়োগকৃত স্টাফদের প্রয়োজনীয় বৈধ কাগজপত্র সংগে বহন নিশ্চিত করবেন। পরিবহন স্টাফরা মালয়েশিয়াগামী ভিকটিমদেরকে সনাক্ত করার চেষ্টা করবেন এবং এ ব্যাপারে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করবেন। পরিবহণ মালিক সমিতির পক্ষ হতে উপরোক্ত সিদ্ধান্ত সমূহ বাস্তবায়নে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্বাত্মক সহযোগিতা এবং যানবাহন নিরাপদে চলাচলের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে সভাপতিকে আশ্বস্ত করে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।