২৩ মে, ২০২৪ | ৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ১৪ জিলকদ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সাঁড়াশি অভিযানে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার    ●  নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলার প্রথম নির্বাচনে সহিংসতায় যুবক খুন; বসতবাড়ি ভাংচুরের অভিযোগ    ●  এভারকেয়ার হসপিটালের শিশু হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. তাহেরা নাজরীন এখন কক্সবাজারে   ●  কালেক্টরেট চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতির সভাপতি আব্দুল হক, সম্পাদক নাজমুল   ●  ক্যাম্পের বাইরে সেমিনারে অংশ নিয়ে আটক ৩২ রোহিঙ্গা   ●  চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুল আলমের অভিযোগ;  ‘আমার কর্মীদের হুমকি-ধমকি দেয়া হচ্ছে’   ●  নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সবকিছু কঠোর থাকবে, অনিয়ম হলেই ৯৯৯ অভিযোগ করা যাবে   ●  উখিয়া -টেকনাফে শাসরুদ্ধকর অভিযানঃ  জি থ্রি রাইফেল, শুটারগান ও গুলিসহ গ্রেপ্তার ৫   ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হেড মাঝিকে  তুলে নিয়ে   গুলি করে হত্যা   ●  যুগান্তর কক্সবাজার প্রতিনিধি জসিমের পিতৃবিয়োগ

পূর্ব শত্রুতার জের-

জোয়ারিয়ানালায় কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় আহত রামু কলেজের অফিস সহায়ক

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের রামুর জোয়ারিয়ানালায় কিশোর গ্যাংয়ের হামলার শিকার হয়ে আহত হয়েছেন রামু সরকারি কলেজের অফিস সহায়ক শামশুল আলম। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে শনিবার বিকেলে কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে তিনি আক্রমণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় রাতেই হামলাকারী একাধিক জনের বিরুদ্ধে রামু থানায় অভিযোগ দিয়েছেন আহত কলেজ কর্মচারির ছোট ভাই আজিজুল হক।

অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে রামু থানার ওসি আবু তাহের দেওয়ান বলেন, এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)কে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

আহত শামশুল আলম (৪০) রামুর জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের নাদের পাড়ার মো. ইসহাক মিয়ার ছেলে। তাকে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

আহতের ভাই আজিজুল হক থানায় দেয়া অভিযোগে উল্লেখ করেন, আমাদের চলাচলের পথ নিয়ে প্রতিবেশী হালিম উল্লাহ কাইসারদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। তারা শামশুল আলমের পরিবারসহ আরো একাধিক পরিবারকে এ পথ দিয়ে চলাচলে বাঁধার সৃষ্টি করে আসছিল। এরই জের ধরে শনিবার কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে শামশুল আলমকে অতর্কিত গতিরোধ করে। এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে তাকে এক যোগে হামলা করে বসে অভিযুক্তরা। তার শোর চিৎকারে বাড়ির লোকজন ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে হামলাকারিরা পালিয়ে যায়।

তিনি আরো উল্লেখ করেন, কায়সারের ছেলে আনাস কিশোর গ্যাং লিডার হিসেবে বাবুসহ একাধিক জনকে নিয়ে এলাকায় অপরাধ করে বেড়ায়। গডফাদারদের আশ্রয়ে থেকে তারা নানান অপরাধ করে বেড়ালেও কেউ প্রতিবাদ করে না। তাদের কারণে শিক্ষার্থীরা ঠিকমতো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে পারে না। প্রতিবাদ করলেই হুমকি দেয়।

হামলার বিষয়ে অভিযোগ দেয়া হয়েছে জেনে আরো হুমকি দেয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন আজিজুল হক।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে অভিযুক্তদের ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি। ###

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।