২২ মে, ২০২৪ | ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ | ১৩ জিলকদ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলার প্রথম নির্বাচনে সহিংসতায় যুবক খুন; বসতবাড়ি ভাংচুরের অভিযোগ    ●  এভারকেয়ার হসপিটালের শিশু হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. তাহেরা নাজরীন এখন কক্সবাজারে   ●  কালেক্টরেট চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারী সমিতির সভাপতি আব্দুল হক, সম্পাদক নাজমুল   ●  ক্যাম্পের বাইরে সেমিনারে অংশ নিয়ে আটক ৩২ রোহিঙ্গা   ●  চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুল আলমের অভিযোগ;  ‘আমার কর্মীদের হুমকি-ধমকি দেয়া হচ্ছে’   ●  নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সবকিছু কঠোর থাকবে, অনিয়ম হলেই ৯৯৯ অভিযোগ করা যাবে   ●  উখিয়া -টেকনাফে শাসরুদ্ধকর অভিযানঃ  জি থ্রি রাইফেল, শুটারগান ও গুলিসহ গ্রেপ্তার ৫   ●  রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হেড মাঝিকে  তুলে নিয়ে   গুলি করে হত্যা   ●  যুগান্তর কক্সবাজার প্রতিনিধি জসিমের পিতৃবিয়োগ   ●  জোয়ারিয়ানালায় কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় আহত রামু কলেজের অফিস সহায়ক

জেলাব্যাপী কদর বাড়ছে শান্তির প্রতীক হাতপাখার!

ha
বসন্তের গরমের ছোঁয়ায় জেলাজুড়ে ব্যাপক আকারে কদর বাড়ছে দিন দিন শাস্তির প্রতীক হাতপাখার। গরম আর লোডশেডিং মিলে দুর্বিষহ পরিস্থিতিতে একটু শান্তি দেয় হাতপাখা। আর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় হাত পাখার চাহিদা বর্তমান সময়ে বাড়ছে। জানা যায়, জেলার আট উপজেলা তথা পেকুয়া, চকরিয়া, মহেশখালী, কুতুবদিয়া, উখিয়া, টেকনাফ, রামু ও কক্সবাজার সদরের প্রত্যন্ত গ্রামগঞ্জে সব বয়সী নারী পুরুষদের মাঝে হাতপাখার কদর দ্বিগুন আকারে বেড়েই চলছে চলতি সময়ে। জেলার বিভিন্ন উপজেলার নানা স্থানে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী তালপাতার পাখা তৈরী করছে বলেও জানা যায়। ঐসব গ্রামে হাত পাখার শিল্পীরা দীর্ঘদিন ধরে এই তালপাতার হাত পাখা তৈরীর পাশাপাশি কাপড়ের পাখা তৈরি করে জীবিকা নির্বাহ করে চলছে বলেও একাধিক সূত্রে প্রকাশ। আবার নানা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামাঞ্চলের মেয়েরা বাড়ীর আঙ্গিনায় বসে বসে দল বেঁধে হরেক রকম কাপড়ের উপর নকশা করে নকশীকাঁথার হাতপাখা তৈরী করে সদরের ঐতিহ্যবাহী ঈদগাঁও বাজার সহ জেলার বিভিন্ন হাট বাজারে বিক্রি করতে দেখা যায়। তবে হাতপাখার সাইজ অনুসারে দাম নিচ্ছে বিক্রেতারা। একাধিক নক্শীকাথার তৈরী করা হাতপাখার শিল্পিদের মতে, পৃষ্ঠপোষকতা পেলেই দেশে অর্থনীতিতে এই শিল্পের চাহিদা বাড়বে বলে অভিমত ব্যক্ত করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।