২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১৯ মাঘ, ১৪২৯ | ১০ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

একটি সাজনো মামলায় কারাগারে

‘জনপ্রিয়তাই কাল হলো মেম্বার মনজুরে’র’

বিশেষ প্রতিবেদক:

জনপ্রিয়তাই কাল হয়েছে আমার জন্যআমার প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রুপ এলাকার একটি অপশক্তি সিন্ডিকেট এক হয়ে একজন নারীকেব্যবহার করে আমার বিরুদ্ধে সাজানো নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করেছে। আমি মনজুর আলম মেম্বার হলফ করে বলতেপারি, কোন ভাবেই এই ধরণের ঘটনার সাথে জড়িত নয়। আমাকে ফাঁসানো হয়েছে। গতকাল বুধবার কারাগারে যাওয়ার আগে  কক্সবাজার কোর্ট সেলে সাংবাদিকদের এই কথা বলেন উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের দুইবারের জনপ্রিয় মেম্বার এম. মনজুরআলম।

তিনি বলেন, এর বিচার আল্লাহকে দিলাম। আল্লাহ যা করেন মঙ্গলের জন্যই করেন। আমার বিশ্বাস এই মিথ্যা মামলা থেকেআমি সহসাই মুক্তি পাব। এই সব মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার জনপ্রিয়তা কেউ রুখতে পারবে না ইনশাল্লাহ। তিনি তাঁর কর্মীসমর্থকদের ধৈর্য ধরার আহবান জানান।

তিনি আরও বলেন, যতই মামলা হামলা হউক, ওই অপশক্তির সাথে কোন ভাবেই আপোষ করব না। এলাকায়  কেউ অন্যায়করলে, এই অন্যায়ের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান অব্যাহত থাকবে বলে হুঁশিয়ারি দেন।

মেম্বার মনজুর আলমের বড় ভাই কুয়েত প্রবাসী মোজাফর আহমদ দাবি করেন, বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমার ছোটভাই মনজুর আলম বিপুল ভোটে ইউপি মেম্বার নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ১নং ওয়ার্ড তথা হলদিয়া পালং ইউনিয়নএলাকার সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন।

কিন্তু মনজুর মেম্বারের জনপ্রিয়তা, এলাকার প্রতি তার দরদ ভালোবাসা এবং উন্নয়ন কর্মকান্ডে ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি কুচক্রিমহল তার চরিত্রে কালিমালেপন পরিবারের সম্মান, ঐতিহ্য ক্ষুন্ন এবং সম্মানহানি করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তারইধারাবাহিকতায় একজন দুশ্চরিত্রা লোভী মহিলাকে ব্যবহার করে আমার জনপ্রতিনিধি ছোট ভাই মনজুর মেম্বার আমারবাবা শামশুল আলমের মিথ্যা, বানোয়াটধর্ষণমামলা দায়ের করিয়েছে।

আমার ভাইয়ের  ওই মহিলার সাথে কখনোই কোন সম্পর্ক ছিল না। অথচ দুশ্চরিত্রা ওই মহিলা তাকে আমার ভাই বিয়েরপ্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ করেছেএমন ভিত্তিহীন বানোয়াট অভিযোগ তুলে উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছে। গত ২০জানুয়ারি উখিয়া থানায় মামলাটি রেকর্ড হয়।

তিনি আরও দাবি করেন, বিগত নির্বাচনের আমার ভাইয়ের প্রতিপক্ষ গ্রুপ, একটি প্রভাবশালী মহল হীন উদ্দেশ্যে ওই মহিলাকেব্যবহার করে আমার ভাই আমাদের পরিবারের সদস্যদের সম্মানহানি করার কুমানসে পরিকল্পিত ভাবে ওই ধর্ষণ মামলা দায়েরকরিয়েছে। যার সাথে আমার ভাই আমাদের পরিবারের দূরতম সম্পর্কও নাই।

তিনি এই মিথ্যা বানোয়াট মামলা থেকে জনপ্রিয় ইউপি সদস্য মনজুর আলমকে অব্যাহতি দেয়ার জন্য স্থানীয় সরকার, জেলাপ্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ আইন প্রয়োগকারি সংস্থার কাছে বিনীত ভাবে আবেদন জানান। একই সাথে সঠিক তদন্তের মাধ্যমেপ্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করে মিথ্যা মামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আহব্বান জানান।

প্রসঙ্গতঃ বুধবার নারী এনজিও কর্মীকে ধর্ষণ ভ্রুন হত্যা মামলায় হলদিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদের এক নম্বর ওয়ার্ডের ইউপিসদস্য ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এম মঞ্জুর আলমকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।