২২ জুন, ২০২৪ | ৮ আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৫ জিলহজ, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  সোনারপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ব্যাচ ২০১৯-এর ঈদ পূণর্মিলন অনুষ্ঠিত হয়েছে   ●  পাহাড় ধ্বসঃ ৮ রোহিঙ্গাসহ নিহত ১০   ●  উখিয়ার ক্যাম্পে পৃথক পাহাড় ধ্বসে ৭ রোহিঙ্গা সহ নিহত ৯   ●  রামুতে ঘুমন্ত স্বামী-স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা   ●  উখিয়া-টেকনাফের ৫ শতাধিক তরুন-তরুণীকে কারিগরি প্রশিক্ষণ দিচ্ছে ‘সুশীলন’   ●  খাদ্যে ভেজাল রোধে সামাজিক আন্দোলন দরকার : খাদ্যমন্ত্রী   ●  ইজিবাইকের ছাদে তুলে ৮ বছরের শিশু নির্যাতন ভিডিও ভাইরাল: তিন অভিযুক্ত গ্রেপ্তার   ●  ভবিষ্যতে প্রেস কাউন্সিলের সার্টিফিকেট ছাড়া সাংবাদিকতা করা যাবে না   ●  একমাসেও অধরা ঘাতক চক্র, চাঞ্চল্যকর হত্যাকাণ্ডের অগ্রগতি নিয়ে পরিবারে হতাশ   ●  সমুদ্রকেই ঘিরে কক্সবাজারের অর্থনীতি

চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুল আলমের অভিযোগ;  ‘আমার কর্মীদের হুমকি-ধমকি দেয়া হচ্ছে’

দ্বিতীয় ধাপে আগামী ২১’মে কক্সবাজারের নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলা পরিষদের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমবার অনুষ্ঠিত হওযা এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন ৫ প্রার্থী। কিন্তু প্রচারণায় গিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর লোকজন দ্বারা সাধারণ ভোটার ও নিজের সমর্থিত লোকজনকে নানাভাবে হুমকি-ধমকি দেয়ার অভিযোগ তুলেছেন সামসুল আলম নামে এক চেয়ারম্যান প্রার্থী।
শুক্রবার (১৭ মে) বিকালে কক্সবাজারের কলাতলী লাইট হাউস এলাকার একটি আবাসিক হোটেলের কনফারেন্স হলে সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ তুলেছেন ভূক্তভোগী সামসুল আলম।
তিনি ঈদগাঁও উপজেলায় মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, পরিকল্পিতভাবে আমার সমর্থক-কর্মীদের নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এসব বিষয়ে নির্বাচন কমিশন, জেলা প্রশাসক, পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থাকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। প্রশাসনের পক্ষে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের আশ্বাস দেয়া হলেও মাঠ পর্যায়ে সেটি লক্ষ্য করছি না। ফলে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিয়ে আমার সন্দেহ রয়েছে। যদি নির্বাচন সুষ্ঠু না হয়, তবে এর দায়ভার নিতে হবে সরকারকে। তারপরও সরকারের প্রতি আমাদের বিশ্বাস আছে। সরকার সুষ্ঠু নির্বাচন করবে।
প্রশাসনের পক্ষে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের আশ্বাস দেয়া হচ্ছে। কিন্তু ওই পক্ষটি সরকারের একটি বিশেষ সংস্থার নাম ব্যবহার করে এখনও হুমকি অব্যাহত রেখেছে।
তিনি বলেন, আমি সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ন নির্বাচন চাই। সরকারও এটার আশ্বাস দিয়েছেন। আমি বিদেশ থেকে দেশে ফিরে এসেছি এলাকার সেবা করতে। সুষ্ঠু নির্বাচনে যে জয়ী হবে তাকে স্বাগত জানাবো।
সংবাদ সম্মেলনে মোটর সাইকেলের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ইয়াছিন হাবীব বলেন, সরকারের প্রতি আমাদের বিশ্বাস আছে। সরকার সুষ্ঠু নির্বাচন করবে। কিন্তু একজন প্রার্থী সরকারের এই বিষয়কে বির্তকিত করতে নানা অপতৎপরতা চালাচ্ছে। এটা সরকারের উচ্চ পর্যায়ের জানানোর জন্য এই সংবাদ সম্মেলন। আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস, সরকার ও নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বদ্ধপরিকর। কারো অপতৎপরতাকে প্রশ্রয় দিবে না প্রশাসন।
উল্লেখ্য, নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলার প্রথম নির্বাচন এটি। যেখানে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন। এরা হলেন, আবু তালেব (প্রতীক-টেলিফোন), সামসুল আলম (প্রতীক-মটর সাইকেল), কুতুবউদ্দিন চৌধুরী (প্রতীক-দোয়াতকলম), নুরুল কবির (প্রতীক-ঘোড়া), সেলিম আকবর (প্রতীক-আনারস)।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।