৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২০ মাঘ, ১৪২৯ | ১১ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

চাকমারকুলে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত-১০

20150402_202142.psd

রামুর উপজেলার চাকমারকুল ইউনিয়নের শ্রীমুরা এলাকায় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ১০ খেলোয়াড় ও গ্রামবাসী আহত হয়েছে। আহতদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।
তৎমধ্যে এক জনকে আশংকাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগে প্রকাশ, শ্রীমুরা ফুটবল একাদশ ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। গতকাল বৃহস্পতিবার শ্রীমুরা ফুটবল একাদশ বনাম খরুলিয়া ঘাটপাড়া ফুটবল একাদশের মধ্যে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলার শেষে ১ গোলে শ্রীমুরা ফুটবল একাদশ হেরে গেলে ওই এলাকার কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসী রেজাউল করিম খোকন ও শহিদুল্লার নেতৃত্বে ৩০/৩৫ জন যুবক খরুরিয়া ঘাট পাড়া ফুটবল একাদশের উপর হামলে পড়ে। ওই সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় আহতরা হলেন, আরমান (২২), আলমগীর (২২), নুরুল আবছার কাজল (২৪), জকরিয়া (৩২) বেদারুল আলম (৩২), ফরিদুল আলম (৩২) হামিদ (২২), মোর্শেদ (১৬), মিজানুর রহমান (২৬) ও শহিদুল্লাহ, (১৮)।
এদের মধ্যে, নুরুল আবছার কাজল (২৪), আলমগীর ও আরমানের অবস্থা আশংকাজনক।
ভুক্তভোগিরা আরও জানিয়েছেন, ওই সময় সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলার পাশাপাশি তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা, মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়।
খরুলিয়া ইউপি সদস্য আবদুর রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থ লে তিনি নিজেই ছিলেন। ওই সময় হামলার ঘটনার প্রতিবাদ করলে সন্ত্রাসী তার উপর হামলার চেষ্টা চালায়। ওই সময় চাকমারকুল ইউপি চেয়ারম্যান মফিদুল আলম ঘটনাস্থলে থাকলেও তিনি নিরব দর্শকের ভূমিকায় ছিলেন বলে মেম্বার আবদুর রশিদ দাবী করেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।