৩০ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১৬ মাঘ, ১৪২৯ | ৭ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ   ●  সেন্টমার্টিনে রিসোর্ট নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশ দিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর   ●  তত্ত্বাবধায়কের কাছে ভুক্তভোগীর আবেদন চিকিৎসার জন্য টাকা দাবি করলো নার্স, হুমকির অভিযোগ   ●  ডিজিটাল আইল্যান্ডকে স্মার্ট আইল্যান্ডে পরিণত করার পেছনের গল্প রচনা করবে ছাত্রলীগ

চকরিয়ায় ছিঁড়ে যাওয়া বাঘগুজারা রাবার ড্যামের মেরামত কাজ শুরু

Chakaria Picture  24-03-2015 (1)
চকরিয়া উপজেলার মাতামুহুরী নদীর বাঘগুজারা পয়েন্টের রাবার ড্যামের ছিড়ে যাওয়া অংশের মেরামত কাজ গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে শুরু হয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের কঠোর নজরদারিতে যান্ত্রিক বিভাগের প্রকৌশলীরা ড্যামটি ছিঁেড় যাওয়ার দুইদিন পর ফের মেরামত কাজ শুরু করেছেন। এদিকে রাবার ড্যামের মাধ্যমে নদীর উজান থেকে নেমে আসা মিঠাপানি আটকিয়ে সেচ সুবিধার উৎস নষ্ট হয়ে যাওয়ার খবরে এদিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ শহিদুল ইসলাম, চকরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো.আতিক উল্লাহ, পেকুয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান রব্বানী ও চকরিয়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আহসানুল হাবিব আল আজাদ জনি।
জানা গেছে, সামুদ্রিক জোয়ারের প্রচন্ড প্রভাবে গত রোববার (২২মার্চ)  ভোররাতে রাবার ড্যামের কয়েকটি স্থানের জয়েন্ট খুলে যায়। এ অবস্থার প্রেক্ষিতে মাতামুহুরী নদীর নীচের অংশ হয়ে উজানে ঢুকে পড়ছে সামুদ্রিক লবণ পানি। বর্তমানে লবণ পানিতে সয়লাভ হয়ে পড়েছে মাতামুহুরী নদী। ফলে নদীতে নষ্ট হয়ে পড়ছে মিঠাপানির উৎস।
পরির্দশনকালে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা এলাকার ৩৩জন কৃষকের সাথে কথা বলে তাদের লিখিত মতামত নিয়েছেন। ওইসময় কৃষকরা জানিয়েছেন, মাতামুহুরী নদীতে লবণ পানি ঢুকে পড়ায় বর্তমানে চকরিয়া উপজেলা ও পেকুয়া উপজেলায় মিঠাপানির সেচ সংকটে হুমকির মুখে রয়েছে বোরো চাষ।
পরিদর্শন শেষে মঙ্গলবার (২৪মার্চ) চকরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো.আতিক উল্লাহ রাবার ড্যামে কৃষক ও চাষাবাদের সুফল-কুফল এবং বর্তমান অবস্থা নির্ণয় করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চট্রগ্রাম অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালকের কাছে তাৎক্ষনিক একটি প্রতিবেদন পাঠিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০৫-০৬অর্থবছরে রাবার ড্যামটির নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। ২০১৩সালে শেষ হয় এটির নির্মাণ কাজ। গতবছরের নভেম্বর মাসে প্রথমবার রাবার ড্যামটির মধ্যখানে ছিঁেড় যায়। মেরামতের চারমাস পর গত রোববার (২২মার্চ) ফের একইভাবে ড্যামের কয়েকটি স্থানে জয়েন্ট খুলে গেছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড ইতোমধ্যে মেরামত কাজ শুরু করেছেন। বর্তমানে রাবার ড্যামটির আওতায় ১৩হাজার ৭১১ হেক্টর ( ৩৪হাজার ২৭৭ একর) জমি রয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিকল্প ব্যবস্থায় সেচ সুবিধা নিশ্চিত করতে কক্সবাজার কৃষি বিভাগের উপ-পরিচালক পরির্দশনকালে কৃষকদেরকে উদ্বুদ্ধ করেছেন। তারমধ্যে যেসব পথ অবলম্বনের জন্য তিনি কৃষকদের উৎসাহ দিয়েছেন তা হচ্ছে জমিতে অগভীর নলকুপ স্থাপন, পুকুরের পানি ব্যবহার ও জমিতে গর্ত করে পানি মজুদ করতে হবে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে বিকল্প ব্যবস্থায় সেচ সুবিধা নিশ্চিত করতে মাঠ পর্যায়ে কর্মরত উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তারা কাজ করবেন।
জানতে চাইলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের চকরিয়া উপ-বিভাগের শাখা কর্মকর্তা (এসও) মোহাম্মদ আলী বলেন, মঙ্গলবার সকাল থেকে প্রকৌশলীরা ড্যামের ক্ষতিগ্রস্থ অংশের মেরামত কাজ শুরু করেছেন। পাউবোর কর্মকর্তারা সার্বক্ষনিক মেরামত কাজ মনিটরিং করছেন। আশা করা যাচ্ছে ২-৩দিনের মধ্যে রাবার ড্যামটি জোড়া লাগানো সম্ভব হবে। এরপর কৃষকদের সেচ সুবিধা নিশ্চিত হবে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।