১৭ এপ্রিল, ২০২৪ | ৪ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৭ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে   ●  ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার,ক্র্যাকের সভাপতি জসিম, সম্পাদক নিহাদ   ●  নতুন জামাতে রঙিন ১০০ শিশুর মুখ   ●  মহেশখালী উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার পাশা চৌধুরীর মৃত্যুতে জেলা আ’লীগের শোক

কেনিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলায় ৭০ জন নিহত

হামলায় আহত এক শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে নিয়ে যাচ্ছেন নিরাপত্তাকর্মীরা। ছবি: এএফপি।কেনিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আল শাবাব জঙ্গিগোষ্ঠীর হামলায় কমপক্ষে ৭০ জন শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এএফপির এক খবরে এ তথ্য জানা গেছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ১৯৯৮ সালে দেশটিতে আমেরিকান দূতাবাসে হামলার পর এটি সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা।
আজ ভোর হওয়ার আগে মুখোধারী বন্দুকধারীরা বিশ্ববিদ্যালয়টিতে এ হামলা চালায়। ঘুমন্ত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার আগে গ্রেনেড ছুড়ে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফটক উড়িয়ে দেয় তাঁরা। বিশ্ববিদ্যালয়টি উত্তর-পূর্বাঞ্চলের গারিশা শহরে অবস্থিত।
কেনিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ইতিমধ্যে জঙ্গিদের দখলে থাকা একটি ভবনে অভিযান চালিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী। এতে চার জঙ্গি নিহত হয়েছে। জঙ্গিরা ১২ ঘণ্টা ধরে ভবনটি দখল করে রেখেছিল। তবে সেখানে মোট কতজন জঙ্গি ছিল, তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত আমরা বেশ কিছু মানুষকে হারিয়েছি। আমরা পুরোপুরি নিশ্চিত নই, তবে এ ঘটনায় ৭০ জনের কাছাকাছি মারা গেছে। ৭৯ জন আহত হয়েছে, তাঁদের মধ্যে নয়জনের অবস্থা গুরুতর।’

আল শাবাব ইতিমধ্যে এ ঘটনার দায় স্বীকার করেছে। এর আগে ২০১৩ সালে সেপ্টেম্বরে জঙ্গিগোষ্ঠীটি নাইরোবির একটি মার্কেটে হামলা চালিয়ে ৬৭ জনকে হত্যা করে। ২০১১ সালে কেনিয়ার সেনাবাহিনী দক্ষিণ সোমালিয়ায় আল শাবাব জঙ্গিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে। এর পর থেকে প্রায়ই কেনিয়ায় পুলিশ ও সাধারণ মানুষের ওপর হামলা করে আসছে গোষ্ঠীটি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।