৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ | ১৫ আশ্বিন, ১৪২৯ | ৩ রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  কক্সবাজারে ১৮ পূজা মণ্ডপ ঝুঁকিপূর্ণ   ●  পর্যটন নগরী কক্সবাজারকে প্রকৃতিবান্ধব পর্যটনে রূপ দিতে হবে- এমপি জাফর   ●  সংগঠনকে সুসংহত করতে ইখলাসপূর্ণ তৎপরতা চালিয়ে যেতে হবে   ●  পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. নজিবুল ইসলামের উদ্যোগে বর্ণিল ‘শারদ সন্ধ্যা’র আয়োজন   ●  মেয়র এলায়েন্স ফর হেলদী সিটি’র নবনির্বাচিত চেয়ারম্যানকে পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের সংবর্ধনা   ●  জেলা পরিষদ নির্বাচনে শেখ হাসিনা মনোনীত প্রার্থীকে বিজয়ী করতে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করবে আওয়ামীলীগ   ●  দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উচ্ছেদ, ক্ষতির দাবি ৫ কোটি টাকার   ●  রুমখাঁ মাদ্রাসার অভিভাবক সদস্য পদে সকলের দোয়া চেয়েছেন ছলিম উল্লাহ বাহাদুর   ●  সাবেক এমপি এড. খালেকুজ্জামান ছিলেন দল মত নির্বিশেষে সকলের কাছে জনপ্রিয় নেতা   ●  বাংলাদেশের মানুষ বঙ্গবন্ধুর প্রতিচ্ছবি দেখতে পায় শেখ হাসিনার মধ্যে- এমপি জাফর

কক্সবাজারে হোটেল ম্যানেজারের মৃতদেহ উদ্ধার

কক্সবাজার প্রতিনিধি:
গত তিনদিনে কক্সবাজার কলাতলির হোটেল বীচ ওয়ার্ল্ড রিসোর্ট ও আলম গেস্ট হাউস থেকে মৃতদেহ উদ্ধারের পর এবার হোটেল সী কক্স এর স্টাফ কোয়ার্টার থেকে ম্যানেজার খালেদ আশরাফ বাপ্পী (২৪) নামে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।
শনিবার (৬ আগস্ট) দিবাগত রাত ১১টার দিকে হোটেল সী কক্সের স্টাফ কোয়ার্টারের একটি কক্ষ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে সহকর্মীরা হাসপাতালে নিয়ে যায়।
উদ্ধার হওয়া আশরাফ বাপ্পী কক্সবাজার সদরের পিএমখালী বাংলা বাজারস্থ নোয়াপাড়া এলাকার প্রবাসি আব্দুল গফুরের ছেলে।
এ ঘটনায় বাপ্পীর পরিবারের সদস্যরা মুফিজ নামে একজনকে হাসপাতালে আটকে রেখেছে।
হোটেলের এজিএম রিদুয়ান হাসান বিপু বলেন, বাপ্পী সকাল ৬ টা থেকে বিকেল ৩ টা পর্যন্ত ডিউটি করেছেন। স্টাফ কোয়ার্টারে গিয়ে মূলত দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। ডিউটি পালনরত অবস্থায় তিনি খুবই স্বাভাবিক ছিলেন। আমরাও বুঝতে পারছি না কেন সে আত্মহত্যা করবে। সে আত্মহত্যা করতে পারে এমন ছেলে নয়।
তিনি বলেন, হোটেলে ম্যনেজারের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি টুকটাক ব্যবসাও করতো সে। মোবাইল ফোনে টাকা লেনদেনের বিষয়ে বিভিন্ন সময় কথা বলতে শুনতাম।
হোটেল কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্য মতে, রাত অনুমানিক এগারোটার দিকে সহকর্মীরা তাকে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায়।
খালেদ আশরাফ বাপ্পীর মা রোকেয়া বেগম বলেন, আমার ছেলে আত্মহত্যা করতে পারে এমন ছেলে না। তাকে হত্যা করা হয়েছে। আমার ছেলের সাথে মুফিজ নামের এক যুবকের সাথে ব্যবসার ৮ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা লেনদেন ছিল।
মুফিজ টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে প্রতারণা করে আসছে। আমার ধারণা ঠান্ডা মাথায় আমার ছেলে বাপ্পীকে হত্যা করা হয়েছে।
খালেদ আশরাফ বাপ্পীর ছোট ভাই রিহাদ জানান, আমাদের চাচা সম্পর্কের নুরুল আজিমের ফোনে একটি কল আসে। অপর প্রান্ত থেকে বলা হয় বাপ্পী মারা গেছে আপনারা তাড়াতাড়ি আসেন।
আমার ভাইকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি।
ঘটনার খবর পেয়ে হোটেল সী কক্স এবং স্টাফ কোয়ার্টার পরিদর্শন করছেন র‍্যাব-১৫ এর সদস্যরা।
কক্সবাজার সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সেলিম উদ্দীন জানান, আমাদের একটি টিম রাত থেকে কাজ করছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। পরিবার থেকে অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান তিনি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।