১৪ জুলাই, ২০২৪ | ৩০ আষাঢ়, ১৪৩১ | ৭ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত   ●  উখিয়ায় পারিবারিক পুষ্টি বাগান মেটাচ্ছে সবজির চাহিদা   ●  বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির থাইংখালী সার্ভিস সেন্টারের ৬ষ্ঠ পিএফটি মিটিং অনুষ্ঠিত

কক্সবাজারে ধানসিঁড়ি রেস্টুরেন্টের কর্মচারী ফেনী থেকে চোরাই মালামালসহ গ্রেপ্তার

আবু সায়েমঃ পুলিশের দূরদর্শিতা ও কর্মদক্ষতার বাস্তবিত প্রয়োগে ধানসিঁড়ি রেস্টুরেন্টের কর্মচারী মাহবুবকে ফেনী মডেল থানাধীন হোটেল গাজী আবাসিক এলাকা থেকে কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে চোরাইকৃত মালামালসহ গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানায়, গত ১২ আগষ্ট পবিত্র ইদুল আযহার দিনে কক্সবাজার কলাতলী রোডস্থ ধানসিঁড়ি রেস্টুরেন্টের কর্মচারী মাহবুব উক্ত রেস্টুরেন্টের ক্যাশ বক্সে থাকা নগদ ১ লক্ষ ৮০ হাজারটাকা এবং রেস্টুরেন্টে স্থাপিত সিসিটিভির ক্যামেরার ডিভিয়ার চুরি করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হলে মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় এসআই আবুল কালাম আজাাদকে । পরবর্তীতে তিনি বিশেষ কৌশল অবলম্বন করে উক্ত যুবক মাহবুবকে এক মহিলার প্রেমের জালে ফেলে মোবাইল ট্রেকিং এর মাধ্যমে ফেনী মডেলথানাধীন এক আবাসিক হোটেলে অবস্থান নিশ্চিত হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানা পুলিশ ও ফেনী পুলিশের সহায়তায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় চোরাইকৃত নগদ টাকা ,মালামাল এবং চোরাই কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়। এস আই আবুল কালাম আজাদ বলেন, গত ১০ দিন ধরে চোরকে ধরার জন্য চেষ্টা করে আসছিলাম। পরবর্তীতে বিশেষ কৌশল অবলম্বন করে উক্ত যুবক মাহবুব কেএক মহিলার প্রেমের জালে ফেলে গত ২১ আগষ্ট ফেনী মডেল থানাধীন এক আবাসিক হোটেলে অভিযান করে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।গ্রেপ্তাকৃত মাহবুবুল আলম নেত্রকোনা জেলার মদন থানা এলাকার বাসিন্দা। তিনি আরো বলেন,মোবাইল ট্রেকিংএ স্থান নিশ্চিত হয়ে গ্রেপ্তার করে চুরি যাওয়া নগদ টাকা ,মালামাল এবং চোরাই কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতিসহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি ফরিদ উদ্দীন খন্দকার বলেন, গ্রেপ্তারকৃত মাহবুবকে উক্ত মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে ।

উল্লেখ্য যে, এর আগেও এসআই আবুল কালাম আজাদের কর্মদক্ষতায় এক নিরীহ মৌলভী মিথ্যা ধর্ষণ মামলা থেকে রেহাই পেয়েছিলো, এবং তদন্তে মিথ্যা মামলা প্রমাণিত হওয়ায় বাদির স্থান হয়েছিলো কারাগারে। সদর মডেল থানায় যোগদানের পর থেকে তিনি সফলতার সাথে তার কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছ্নে। মাদক নির্মূল, চুরি ছিনতাই রোধে সহায়তা, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক, চাঞ্চল্যকর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তে সফল অভিযানের মাধ্যমে সত্য উদঘাটনসহ ব্যাপক ভূমিকা পালন করে আসছেন। এজন্য তিনি জেলা ব্যাপী অসংখ্যবার পুরুস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।