১৭ জুলাই, ২০২৪ | ২ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১০ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে   ●  আন্দোলনের নামে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির প্রতিবাদে কক্সবাজার ছাত্রলীগের সমাবেশ   ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত

উখিয়া বায়তুশ শরফ বালিকা মাদ্রাসা নানা সমস্যায় জর্জরিত

UKHIYA PIC 21.03.2015(1)
উখিয়ার একমাত্র সরকার অনুমোদিত রাজাপালং বায়তুশ শরফ আদর্শ শাহ জব্বারিয়া দাখিল মাদ্রাসাটি নানা সমস্যার বেড়াজালে আবদ্ধ থাকা সত্ত্বেও শিক্ষক-শিক্ষিকা ও পরিচালনা কমিটির ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় গত ৩ বছর ধরে জেডিসি ও দাখিলে শতভাগ সফলতা অর্জন করে আসছে। সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন এ মাদ্রাসায় একটি মহিলা হোষ্টেল প্রতিষ্ঠা করা হলে পড়ালেখার মান উন্নয়নের পাশাপাশি এতদ্ঞ্চলে দ্বীনি নারী শিক্ষার উজ্জ্বল সম্ভাবনা ছিল।
উপজেলার প্রাণকেন্দ্রে মাদ্রাসার স্থায়ী কোন প্রতিষ্ঠান না থাকলেও সাইক্লোন সেল্টারে টিনের ঘেরা আচ্ছাদিত পরিবেশে সংকুচিত এ প্রতিষ্ঠানে আড়াআড়ি ভাবে পড়ালেখা করে আসছে প্রায় ৪ শতাধিক ছাত্রী। ২০ জন অভিজ্ঞ শিক্ষক-শিক্ষিকা দ্বারা পরিচালিত এ মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৯১ সালে। মাদ্রাসার স্বত্বদখলীয় ৯০ শতক জমি থাকলেও বেশির ভাগ জমি অন্যের দখলে থাকায় বাহ্যিক আয় থেকে সম্পূর্ণ বঞ্চিত এ মাদ্রাসাটি পরিচালিত হয়ে আসছে নানা সমস্যা অতিক্রম করে।
সরেজমিন, মাদ্রাসা ঘুরে স্থানীয় অভিভাবকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাহিরে চাকচিক্য না থাকলেও শিক্ষা দীক্ষায় অধিকতর গুনগত মানসম্পন্ন এ মাদ্রাসায় আসবাবপত্র সংকট, খেলার মাঠসহ বিনোদনের কোন ব্যবস্থা না থাকায় ছাত্রীরা মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত। মাদ্রাসার সুপার মাওলানা ছানা উল্লাহ জানান, ১৯৯৮ সনে অ+সহ শতভাগ পাশের ধারাবাহিকতায় ২০১৪ সালে ৩৪ জন ছাত্রীর মধ্যে ৩ জন অ+, ২১ জন অ সহ ১১ জন অ- নিয়ে শতভাগ পাশ করেছে। তিনি বলেন, আর্থিক দৈন্যদশার কারণে মাদ্রাসাটি উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ থাকা সত্ত্বেও এগুতে পারছেনা।
মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি রাজাপালং এম ইউ ফাজিল (ডিগ্রী) মাদ্রাসার অধ্যক্ষ একেএম আবুল হাছান আলী জানান, অনেক ত্যাগ তিতীক্ষার বিনিময়ে এতদ্ঞ্চলের নারী দ্বীনি শিক্ষা প্রসারের লক্ষ্যে বালিকা মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এ মাদ্রাসাটিকে নিজস্ব ভবনে প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে মাদ্রাসাকে আরো সমৃদ্ধ করার জন্য ইতিমধ্যেই একটি জমি ক্রয় করা হলেও অর্থভাবের কারণে অবকাঠামোগত উন্নয়নের কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। এব্যাপারে তিনি এলাকার বিত্তবানদের সার্বিক সহযোগীতা কামনা করেছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।