২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ১৯ মাঘ, ১৪২৯ | ১০ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

উখিয়া বনবিটের ৭টি গর্জন গাছ লুট

SAMSUNG CAMERA PICTURES
উখিয়া বন রেঞ্জের অস্তিত্বহীন উয়ালা বনবিটের ৭টি গর্জন মাদার ট্রি রাতের আধাঁরে লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। উক্ত বনবিট কার্যালয়টি জবর দখল হয়ে অস্তিত্বহীন অবস্থায় একটি জরাঝির্ণ নামমাত্র কুড়ে ঘর থাকলেও প্রায় অর্ধ শতাধিক গর্জন মাদার ট্রি সংরক্ষণ করা হয়েছিল। গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার দু’রাতে পর পর ৭টি মাদার ট্রি চুরি হয়ে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে গ্রামবাসীর মধ্যে উদ্বেগ সৃষ্টি হলেও সংশ্লিষ্ট বিট কর্মকর্তার কোন মাথা ব্যাথ্যা নেই। জানতে চাওয়া হলে ওই বনবিট কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান মিয়া জানান, দুর্বৃত্তরা ৭টি গাছ চুরি করে নিয়ে গেছে। তবে এলাকার প্রত্যক্ষদর্শী নবী হোছন ড্রাইভার ও স্থানীয় প্রাথমিক শিক্ষক মাস্টার জানে আলম বলেন, আগের দিন সন্ধ্যায় বিট কর্মকর্তা ২/৩জন কাঠ চোরের সাথে কথা বলতে দেখা গেছে। পরদিন সকালে গিয়ে দেখা যায়, ৭টি কাটা গাছের গোড়ালি। সহকারি বন সংরক্ষক রেজাউল করিম চৌধুরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ৭টি গাছ লুটের সত্যতা পেয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। উল্লেখ্য থাকে যে, প্রায় সাড়ে ৩ হাজার একর বনভূমি নিয়ে এ উয়ালা বিট কার্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৫২ সনে। বন সম্পদ লুটপাট ও বনভূমি জবর দখলের ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকার ফলে বর্তমানে বিট কর্মকর্তার কার্যালয়টি অরক্ষিত হয়ে পড়েছে। স্থানীয়রা বলছেন, অদূর ভবিষ্যতে এ বনবিট অফিসটিও জবর দখল হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।