৩০ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১৬ মাঘ, ১৪২৯ | ৭ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ   ●  সেন্টমার্টিনে রিসোর্ট নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশ দিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর   ●  তত্ত্বাবধায়কের কাছে ভুক্তভোগীর আবেদন চিকিৎসার জন্য টাকা দাবি করলো নার্স, হুমকির অভিযোগ   ●  ডিজিটাল আইল্যান্ডকে স্মার্ট আইল্যান্ডে পরিণত করার পেছনের গল্প রচনা করবে ছাত্রলীগ

উখিয়ায় সন্ত্রাসী আলা উদ্দিন আটক, সহযোগীরা ধরা ছোয়ার বাইরে

shomoy
কক্সবাজারের উখিয়ার রুমখা মনির মার্কেট এলাকার ত্রাস কুখ্যাত সন্ত্রাসী আলা উদ্দিন (২৬) কে আটক করেছে উখিয়া থানা পুলিশ। ৮ মার্চ (রবিবার) দুপুরে উখিয়া থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ সেলিম চৌধুরী কোটবাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করে। আটক সন্ত্রাসী আলা উদ্দিন রুমখা মনির মার্কেট এলাকার শীর্ষ জুয়াড়ী ও পকেটমার মাহমুদুল হক ওরপে মাদুলিক্যার ছেলে।
উখিয়া থানার উপ-পরিদর্শক সেলিম চৌধুরী জানান, আটককৃত সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে গত ৪ ফেব্রুয়ারী রাত ৮টায় পাইন্যাশিয়া চর পাড়া গ্রামের কাদির হোছনের ছেলে মোঃ আব্দুল্লাহ (২২) কে চুরিকাঘাত করে নগদ ৪০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ এবং ২০১৩ সালের ২৪ মার্চ রাতে একই গ্রামের মির আহম্মদের ছেলে নুরুল হাকিম কে ধারালো কিরিচ দিয়ে কুপিয়ে জখম করে নগদ টাকা ছিনতাই সহ বিভিন্ন অপরাধ জনক ঘটনার একাধিক মামলা আছে।
এদিকে রুমখা মনির মার্কেট সহ আশ পাশের গ্রামের অসংখ্য মানুষ অভিযোগ করে জানান, সন্ত্রাসী আলা উদ্দিন, তার ভাই মহি উদ্দিন, মোঃ সেলিম এবং একই গ্রামের শামশুল আলমের ছেলে মোঃ মামুন সহ একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ র্দীঘ দিন ধরে রুমখা মনির মার্কেট, বাজার পাড়া, কোটবাজার সহ আশ পাশ এলাকায় মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ, জুয়ার আসর বসিয়ে টাকা কামাই, চুরি, ছিনতাই, নিরহ লোকজনদের মারধর করে জখম সহ নানা অপকর্ম করে আসছেন। এসব অপকর্মে এলাকার শীর্ষ জুয়াড়ী ও পকেটমার মাহমুদুল হক ওরপে মাদুলিক্যা এবং মামুনের পিতা শামশুল আলম সহায়তা করে থাকে। খোজ নিয়ে জানা যায়, উক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধেও একাধিক মামলা থানা ও আদালতে বিচারাধীন আছে। নাম প্রকাশে অনিশ্চুক স্থানীয় এক ইউপি সদস্য অভিযোগ করে জানান, সন্ত্রাসী আলা উদ্দিন আটকের ঘটনায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে। পর্যায়ক্রমে তার সহযোগীদের গ্রেপ্তার করার জন্য তিনি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।