১৪ এপ্রিল, ২০২৪ | ১ বৈশাখ, ১৪৩০ | ৪ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে   ●  ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার,ক্র্যাকের সভাপতি জসিম, সম্পাদক নিহাদ   ●  নতুন জামাতে রঙিন ১০০ শিশুর মুখ   ●  মহেশখালী উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার পাশা চৌধুরীর মৃত্যুতে জেলা আ’লীগের শোক   ●  পাহাড়ে শান্তি ফেরাতে যৌথ অভিযান   ●  নিরাপদ পেকুয়া গড়তে দলমত নির্বিশেষে সকলকে এক হতে হবে, ড. সজীব

উখিয়ায় নামসর্বস্ব হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধে মাঠে প্রশাসন

কক্সবাজার প্রতিনিধি:
কক্সবাজারের উখিয়ায় নামসর্বস্ব হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধে মাঠে নেমেছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।
রবিবার (২৯ মে) দুপুরে উখিয়া উপজেলাধীন পালংখালী, কোর্টবাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ২টি অবৈধ হাসপাতাল ও ১ টি ডেন্টাল ক্লিনিকের কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা ও সীলগালা করা হয়।
উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর স্মারক নং-স্বাঃঅধিঃ/সমন্বয়/সভা/২০২২/২২৭(৯) তারিখের সভার প্রেক্ষিতে সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজার জেলার উখিয়া উপজেলায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা নামসর্বস্ব হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধে কার্যকর শুরু করে।
উখিয়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে সহকারী কমিশনার (ভূমি), মোঃ তাজ উদ্দীন ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা, ডা. রনজন বড়ুয়া রাজন, উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মহি উদ্দীন মহিন, স্যানিটারী ইন্সপেক্টর জনাব মোঃ নুরুল আলম, পরিসংখ্যানবিদ সঞ্জয় দাশ সহ পুলিশ প্রশাসনের সহযোগীতায় অভিযান পরিচালিত হয়।
অভিযানে বালুখালী বাজার সংলগ্ন ‘‘বি. কে. ডেন্টাল কেয়ারে’’ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। এ সময় ক্লিনিকে কাউকে পাওয়া যায় নি, ডেন্টাল কেয়ারটি সীল গালা করে বন্ধ ঘোষনা করা হয়।
পরবর্তীতে পালংখালী বাজার সংলগ্ন ‘‘তাজমান হাসপাতাল’’ পরিদর্শন করা হয়। ওই সময় হাসপাতালের কাগজপত্র পর্যালোচনায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর হতে নিবন্ধনের কোন কাগজের প্রমাণাদি পাওয়া যায়নি।
ওই সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে তাজমান হাসপাতালকে ৪০ হাজার টাকা অর্থ দন্ডসহ হাসপাতালটি বন্ধ ঘোষনা করা হয়।
একই ভাবে কোটবাজার ‘‘অরিয়ন হাসপাতাল’’ পরিদর্শনকালে হাসপাতালটি তালাবদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। মোবাইল কোর্ট টিম উক্ত হাসপাতালটিকে পূণরায় তালাবদ্ধ ও সীলগালা করে দেয়া হয় বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প. কর্মকর্তা, ডা. রনজন বড়ুয়া রাজন।
তিনি এও বলেন, এধরণের অবৈধ প্রতিষ্ঠান বন্ধে আগামীতেও অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।