১৮ জুলাই, ২০২৪ | ৩ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১১ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে   ●  আন্দোলনের নামে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির প্রতিবাদে কক্সবাজার ছাত্রলীগের সমাবেশ   ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত

উখিয়ার কিশোরী গণধর্ষণ ও হত্যা মামলায় আটক-১

Copy of atok
উখিয়ার রতœাপালং ইউনিয়নের রুহুল্লার ডেবা গ্রামের কিশোরী রাবেয়া বেগমকে (১৫) অপহরণ করে গণধষর্ণ পরে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা মামলায় উখিয়া থানা পুলিশ সিএনজি চালক তেলী পাড়া গ্রামের জাফর আলমের ছেলে শাহাব উদ্দিনকে (২৩) আটক করেছে। এঘটনায় রাবেয়া পিতার জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার ৩ জনকে আসামী করে উখিয়া থানায় একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেছে।
উল্লেখ্য যে, গত মঙ্গলবার দুপুর ৩টার দিকে রাবেয়া বেগম তার কর্মস্থল রাজাপালংস্থ সূর্যের হাসি ক্লিনিক থেকে বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে কোর্টবাজার স্টেশনে পৌঁছলে আগে থেকে উৎপেতে থাকা রুহুল্লার ডেবা গ্রামের প্রবাসী মাহবুবুল আলমের ছেলে আব্দুল্লাহ প্রকাশ টিটু (২২) ও তার বন্ধু পল্লানপাড়া গ্রামের জসিম উদ্দিন রাবেয়াকে অপহরণ করে প্রথমে ইনানী পরে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের সামনে অবস্থিত পি,এম গেস্ট হাউসে নিয়ে যায়। গেস্ট হাউসের মালিক গুরা মিয়া বলেন, তারা স্বামী-স্ত্রী ও বন্ধু পরিচয় দিয়ে ১০২ নং কক্ষটি ভাড়া নেয়।
উখিয়া পুলিশের হাতে আটক সিএনজি চালক শাহাব উদ্দিন (২৩) জানান, তাকে হোটেলের নীচে বসিয়ে রেখে ৪/৫ ঘন্টা রুমে অতিবাহিত করার পর অজ্ঞান অবস্থায় রাবেয়াকে তার সিএনজিতে করে ফুয়াদ আল- খতীব হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত রাবেয়াকে মৃত ঘোষণা করে। অবস্থা বেগতিক দেখে জসিম উদ্দিন ও আব্দুল্লাহ আল টিটু তার সিএনজি নিয়ে পালিয়ে যায়। কক্সবাজার মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ মতিউল ইসলাম জানান, রাবেয়া নামের একটি কিশোরীকে হাসপাতালের বারান্দা থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্ত সম্পন্ন শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ হাবিবুর রহমান জানান, এঘটনা নিয়ে একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে এবং আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য প্রক্রিয়া চলছে।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।