১৮ জুলাই, ২০২৪ | ৩ শ্রাবণ, ১৪৩১ | ১১ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  কলেজছাত্র মুরাদ হত্যা মামলার আসামি রহিম কারাগারে   ●  আন্দোলনের নামে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরির প্রতিবাদে কক্সবাজার ছাত্রলীগের সমাবেশ   ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত

কৃষি কর্মকর্তা নিজাম ঊদ্দিনের নিরলস প্রচেষ্টা

উখিয়ায় পারিবারিক পুষ্টি বাগান মেটাচ্ছে সবজির চাহিদা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

উখিয়ার পাঁচটি ইউনিয়নে পারিবারিক পুষ্টি বাগানে সফলতা পাচ্ছে কৃষকেরা। উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শ ও বীজ নিয়ে নিজ নিজ বাড়ির আঙিনা ও অনাবাদি জমিতে বিভিন্ন সবজি বাগান করছেন কৃষকেরা। এতে পারিবারিক চাহিদা মিটিয়ে বিক্রি করে লাভবানও হচ্ছেন তারা। উপজেলা কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে এসব বাগান করার জন্য উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে কৃষকদের। দেওয়া হচ্ছে প্রশিক্ষণও। এতে প্রতি ইঞ্চি অব্যবহৃত ও অনাবাদি জমির ব্যবহার নিশ্চিত হচ্ছে। এদিকে সবজি চাষে পরিবারে পুষ্টি চাহিদা পূরণ হচ্ছে।

কৃষক আলমগীর বলেন,”বাড়ির আঙিনায় সবজি চাষ করার ফলে নিজেরাই পরিচর্যা করছি। পরিবারের সবজির চাহিদা পূরণ করতে বাইরে থেকে সবজি কিনতে হচ্ছে না।”

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, ৩বছর মেয়াদি এই প্রকল্পের আওতায় পাঁচ ইউনিয়নে খরিপ -১/২০২৪ মৌসুমে ৬৬টি পুষ্টিবাগান করা হয়েছে। মুজিববর্ষে যে সব গৃহহীন ব্যক্তি বসতবাড়ি পেয়েছেন সে সব বাড়িকে প্রদর্শনীর ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
প্রকল্পের আওতায় গ্রামীণ অঞ্চলের বসতবাড়ির আঙিনা, বাড়ির আশপাশ, স্যাঁতসেঁতে ছায়াযুক্ত স্থানে সবজির চাষ হবে। সেই সঙ্গে পারিবারিক পুষ্টির চাহিদা মেটানোর জন্য কৃষক পরিবারগুলাতে ২০ ধরনের বীজ ও ৬ প্রকার জৈব ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়েছে। এতে বাড়ি বাড়ি গড়ে উঠবে পুষ্টিবাগান।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো. নিজাম উদ্দিন বলেন,”বর্তমান সরকারের অনন্য উদ্যোগ বাড়ির এক ইঞ্চি জমিও খালি থাকবেনা। তিন বছর মেয়াদী পুষ্টি বাগান প্রকল্পে উপজেলায় ৬৬টি পুষ্টি বাগান করা হয়েছে। বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। পুষ্টি বাগানের দিকে কৃষকদের উদ্ধুদ্ধ করা হচ্ছে। কৃষকেরা নিজ থেকে পুষ্টি বাগানের প্রতি উদ্ধুদ্ধ হয়ে বীজ ও সার সংগ্রহ করে পারিবারিক চাহিদা মিটিয়ে বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে। উপজেলার কৃষক-কৃষাণীদের কৃষি সম্পর্কিত যেকোনো সেবা প্রদানে কৃষি অফিস বদ্ধপরিকর।”

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।