১৭ এপ্রিল, ২০২৪ | ৪ বৈশাখ, ১৪৩১ | ৭ শাওয়াল, ১৪৪৫


শিরোনাম
  ●  ‘বনকর্মীদের শোকের মাঝেও স্বস্তি, হত্যার ‘পরিকল্পনাকারি কামালসহ গ্রেপ্তার আরও ২   ●  উখিয়া নাগরিক পরিষদ এর ঈদ পুনর্মিলনী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত   ●  আদালতে ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার দায়স্বীকার সেই ডাম্পার চালক বাপ্পির   ●  ‘অভিযানে ক্ষুব্ধ, ফরেস্টার সাজ্জাদকে পূর্বপরিকল্পনায় হত্যা করা হয়’   ●  ফাঁসিয়াখালীতে পৃথক অভিযানে জবর দখল উচ্ছেদ, বালিবাহী ডাম্পার জব্দ   ●  অসহায়দের পাশে ‘রাবেয়া আলী ফাউন্ডেশন’   ●  ফরেস্টার সাজ্জাদ হত্যার মূল ঘাতক সেই বাপ্পী পুলিশের জালে   ●  ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার,ক্র্যাকের সভাপতি জসিম, সম্পাদক নিহাদ   ●  নতুন জামাতে রঙিন ১০০ শিশুর মুখ   ●  মহেশখালী উপজেলা আ’লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার পাশা চৌধুরীর মৃত্যুতে জেলা আ’লীগের শোক

ঈদগাঁওতে লাখ টাকায় আকাশি খুঁটিতে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগের আবেদন!

shomoy
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে লাখ টাকায় অবৈধ খুঁটিতে বিদ্যুৎ সংযোগের আবেদনের গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। এ সংবাদে এলাকায় চলছে তোলপাড়। নেপথ্যে বিদ্যুৎ কর্মকর্তা, কর্মচারীদের সংশ্লিষ্টতার আশংকা করছে স্থানীয়রা। জানা যায়, বিগত এক বছর পূর্বে রাতারাতি পল্লী বিদ্যুতের একটি খুঁটি ঈদগাঁও ইউনিয়নের দক্ষিণ মাইজপাড়া মসজিদ সংলগ্ন কাঁদা পুকুর পাড়ে স্থাপন করে একটি অবৈধ খুঁটি। যা থেকে তৎসংলগ্ন মৃত আবুল ফয়েজের সৌদি প্রবাসী ছেলে ফয়েজুল আমিনের বাড়ীতে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে যায়। তখন লাখ টাকার বিনিময়ে এ খুঁটি কোন না কোন স্থান থেকে অবৈধভাবে সংগ্রহ করে রাতারাতি স্থাপনের সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এতে জড়িতরা থমকে যায়। অভিযোগ উঠে জিহাদ নামে এক যুবকের মাধ্যমে ইলেকট্রিক মিকার আবদুল আজিজ, প্রকাশ ভেটেক এ খুঁটি স্থাপনে সহযোগিতা করে। দীর্ঘ এক বছর পর বিগত ২/৩ মাস পূর্বে অবৈধভাবে প্রবাসীর বাড়ীতে সংযোগ নিয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার শুরু করে এবং মিটারের জন্য ঈদগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ এরিয়া অফিসে আবেদন করে বলে বিশ্বস্থ সূত্রে জানা যায়। এলাকাবাসী দীর্ঘসময় পর একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখে স্থানীয় সাংবাদিকদের জানায়, এ গর্হিত কাজ পল্লী বিদ্যুৎ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, কর্মচারীদের যোগসাজস ছাড়া হতে পারে না। তাই তদন্ত পূর্বক এ অবৈধ খুঁটির উৎস, স্থাপনে জড়িত ও তাদের সহযোগিতাকারীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছে। উক্ত অভিযোগের বিষয়ে ঈদগাঁও পল্লী বিদ্যুৎ এরিয়া অফিসের এজিএম শফি উদ্দীনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান। অপরদিকে ইলেকট্রিক মিটার ভেটেকের সাথে যোগাযোগ করা হলে সে সহ কয়েকজন অনৈতিক মোটা অংকের চুক্তিতে অবৈধভাবে খুঁটিটি স্থাপনের কথা স্বীকার করলেও বর্তমানে বিদ্যুৎ ব্যবহার ও মিটারের আবেদনের ঘটনা অবগত নয় বলে জানান। তবে অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীর বাড়ীর কোন সদস্যের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া না যাওয়ায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।