১৪ জুলাই, ২০২৪ | ৩০ আষাঢ়, ১৪৩১ | ৭ মহর্‌রম, ১৪৪৬


শিরোনাম
  ●  স্বেচ্ছাসেবী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য হাসিঘর ফাউন্ডেশনকে সম্মাননা প্রদান    ●  চতুর্থবারের মতো শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট নির্বাচিত হলেন রোবায়েত   ●  সেন্টমার্টিনে ২ বিজিপি সদস্যসহ ৩৩ রোহিঙ্গা বোঝাই ট্রলার   ●  উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২   ●  উখিয়ায় ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি; কাঁচা ঘরবাড়ি, গ্রামীণ সড়ক লন্ডভন্ড   ●  উখিয়ায় কৃষি বিভাগের প্রণোদনা পেলেন ১৮০০ কৃষক /কৃষাণী   ●  আরসার জোন ও কিলিংগ্রুপ কমান্ডার আটক ৩   ●  পটিয়া প্রেস ক্লাবের নতুন কমিটি গঠিত   ●  উখিয়ায় পারিবারিক পুষ্টি বাগান মেটাচ্ছে সবজির চাহিদা   ●  বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির থাইংখালী সার্ভিস সেন্টারের ৬ষ্ঠ পিএফটি মিটিং অনুষ্ঠিত

ঈদগাঁওতে একাধিক পয়েন্টে বালু উত্তোলনের হিড়িক

balo
চট্টগ্রাম কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়ার খুটাখালী, ঈদগাঁও চান্দের ঘোনা, কালিরছড়া ও রামুর জোয়ারিয়া নালায় হঠাৎ বালু ব্যবসায়িদের বালু উত্তোলনের ধুম পড়েছে। আর এ সমস্ত বালু স্তুপীকরণ করছে মহাসড়কের উপর। এই সমস্ত এলাকায় বিভিন্ন পয়েন্টে মেশিন দিয়ে অপরিকল্পিত ভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে মারাত্মক পরিবেশ বিপর্যের আশংকা করছে সচেতন মহল। সরজমিনে স্থানীয় বাসিন্দা ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের ভোমরিয়া ঘোনা, চান্দের ঘোনা, কালিরছড়া, বাশঘাটা , পোকখালী, পালপাড়া, চৌফলদন্ডী, ভাদীতলা, নাপিতখালী, খুটাখালী ও জোয়ারিয়ানালার বিভিন্ন পয়েন্টে মেশিন দিয়ে সরকারী নদী-নালা, খাল ও পাহাড় থেকে নেমে আসা ছরা থেকে দিন রাত নির্বিঘেœ বালি উত্তোলন করা হচ্ছে। অন্য দিকে ঈদগড়-ঈদগাঁওয়ের ফুলেশ্বরী নদীর কয়েকটি স্থানে নিয়মিত বালু উত্তোলনের ফলে ভাঙ্গনের ঝুঁকির মুখে পড়ায় আতংকিত হয়ে পড়েছে স্থানীয় বাসিন্দারা। তারপরও প্রশাসন কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন ও বনবিট কর্তাদের নাকের ডগায় বালু উত্তোলন করা হলেও বাস্তবে কোন ধরণের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। নাম প্রকাশে অনিচ্চুক কয়েক ব্যবসায়ীর মতে, উপরিমহল ঠিক করেই তারা কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। বিশ্বস্থ সূত্র মতে, ঈদগাঁও নদীর বাঁশঘাটা, জাহানার বালিকা বিদ্যালয়ের সামনে এবং কোমারপাড়া পয়েন্টে জনৈক এক বালু ব্যবসায়ী হরদম মেশিন দিয়ে নির্বিচারে বালু উত্তোলন করছে। ফলে উক্ত পয়েন্ট গুলোতে ভাঙ্গনের ঝুঁকির মুখে স্থানীয়রা।

ফাইল ছবি

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।