৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২৬ মাঘ, ১৪২৯ | ১৭ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  চট্টগ্রামের বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, এমপি মোসলেম উদ্দীনের মৃত্যুতে কক্সবাজার জেলা আ’লীগের শোক   ●  স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের সঙ্গে একান্তে সাক্ষাত এমপি জাফর আলমের   ●  কক্সবাজার সদর হাসপাতালে হয়রানি ও হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন   ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম

আমরা এখন আর সাংবাদিকতা করি না, বসে বসে আঙ্গুল চুষি!

রাসেল চৌধুরী

বর্তমান সময়ে আমরা কি সাংবাদিকতা করি? সোজাসাপ্টা জবাব, করিনা! যা করি তা গা বাঁচিয়ে পত্রিকা অফিসে হাজিরা দিই।কারেন্ট নিউজ করি। কে পানিতে পড়লো, কে গাড়ীতে মরলো বা কে কাকে মারলো। পানিতে গাড়ীতে পড়ার নিউজ গুলোঠিকঠাক মতো করলেও মারামারির নিউজ গুলো করার সময় দলমত, জাত গোষ্ঠী বিবেচনা করি!
এছাড়া বিভিন্ন সংগঠনের সভা, সেমিনার সেম্পুজিয়ামের খবর, কোন রেষ্টুরেন্ট কেমন আলোচপচনাপিয়াজু বানালো, জিলাপি কেমন হলো বা হালিমের স্বাদ কেমন ইত্যাদি ইত্যাদি প্রচার করি! আর নেতা, পুলিশ আমলাদের গুণকীর্তন করি। এসবছাড়া কি রিপোর্ট করার মতো আর কোন নিউজ নেই? অবশ্যই আছে।
চারিদিকে ভূরি ভূরি নিউজ। লুটপাটের মহাউৎসব। ছিনতাইয়ের উৎস। দখল বাণিজ্য। মাদক বাণিজ্য। জুয়া বাণিজ্য। দাদনবাণিজ্য। কিশোর গ্যাং। ফেইক অভিযান আর ফেইক প্রেসনোটের ছড়াছড়ি।
আমরা বিভিন্ন বাহিনীর পাঠানো প্রেসনোট ছাপি কিন্তু এই খবরের পেছনের খবর ছাপতে পারি না!
কারণ আমাদের হাতপা বাধা!!
হইতো অনেকে দ্বিমত করবেন, নিউজ করলে সমস্যা কি? সমস্যা অনেক? অতীত অভিজ্ঞতা তাই বলে। দেশের সার্বিকপরিস্থিতিও তাই বলে।
কেউ যদি বলেন সমস্যা নেই তাহলে কক্সবাজারে দুর্নীতিগ্রস্ত প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সিনিয়র আমলা, জুনিয়রআমলা, চোরের সর্দার নেতাদের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক অনুসন্ধানী রিপোর্ট করবো, আপনারা কি(পাঠক) আমাদের(সাংবাদিক) পাশে দাঁড়াবেন? আমাদের নিরাপত্তা দেবেন? আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনিয়ম দুর্নীতি নিয়ে লিখব, কোমরে রশি বেধে নিয়ে যাবে, আপনারা কি আটকাবেন?

মাথামোটা মেধাশূন্য নেতাদের হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি নিয়ে লিখব, পেঠুয়া বাহিনী এসে হামলা করবে, আপনারা কি রক্ষাকরবেন? দুর্নীতিবাজ আমলাদের চুরি ধরিয়ে দেব, পেছনে সুবিধাভোগীদের লেলিয়ে দেবেন, তখন কি পাশে এসে দাঁড়াবেন? দাঁড়াবেন না।
উল্টো তখন বলবেন, ছেলেটা বেশী বাড়াবাড়ি করে! পরিবেশ পরিস্থিতি বুঝে না! এসময়ে ঝুকি নেওয়ার দরকার কি? এবার বুঝুকমজা? পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে ভাল করেছে, অমুক ভাইয়ের সমর্থকরা মেরেছে, তাও ভাল করেছে।

এই যদি হয় অবস্থা, তাহলে সাংবাদিকরা সাংবাদিকতা করবে কিভাবে? তাই আমরা এখন আর সাংবাদিকতা করি না, বসে বসেআঙ্গুল চুষি!

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।