৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ | ২০ মাঘ, ১৪২৯ | ১১ রজব, ১৪৪৪


শিরোনাম
  ●  প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানোন্নয়নে কক্সবাজার পৌর এলাকায় চলছে দরিদ্রবান্ধব নগর পরিকল্পনা ও উন্নয়ন কাজ   ●  পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে নিষিদ্ধ পলিথিন, হাইড্রোলিক হর্ণ জব্দ, জরিমানা   ●  বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্ব শ্রেষ্ঠ জাতীয়তাবাদের নেতা   ●  হাতের কব্জির রগ কেটে মোবাইল-ল্যাপটপ ছিনতাই   ●  কক্সবাজারে ইয়াবার মামলায় ৮ রোহিঙ্গার যাবজ্জীবন   ●  লোহাগাড়ায় পুলিশ কর্মকর্তার পরিবারকে ‘পেট্রোলের আগুনে’ পুড়িয়ে মারার চেষ্টা!   ●  চকরিয়ার সাহারবিলে সড়ক উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করলেন এমপি জাফর আলম   ●  রাইজিংবিডির বর্ষাসেরা প্রতিবেদক তারেককে আরইউসির শুভেচ্ছা   ●  স্ট্রীটফুড ও ড্রাই ফিস প্রশিক্ষাণার্থীদের মধ্যে সার্টিফিকেট বিতরণ ও সাপোর্ট প্রদান   ●  রামুতে দুই শতাধিক মানুষ বিনামূল্যে পেল স্বাস্থ্যসেবা ও ওষুধ

অল্প বৃষ্টিতে ঈদগাঁও বাজার জলাবদ্ধতায় সৃষ্টি: যাতায়াতে শিক্ষার্থীসহ পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে

index
জেলা সদরের বহুল আলোচিত বাণিজ্যিক কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজারে এখন অল্প বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে করে যাতায়াতে শিক্ষার্থীসহ পথচারীদের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। এসব বিষয়ে দেখার কেউ নেই। জেলার দ্বিতীয় বৃহত্তম বাণিজ্যিক এলাকা ঈদগাও বাজার। এবার নিলাম ডাক হয়েছে বহু লাখ টাকায়। সদর উপজেলার ঈদগাও ও জালালাবাদ এবং অংশবিশেষ ইসলামাবাদ ইউনিয়ন নিয়েই অবস্থিত। প্রাচীন কাল হতেই সপ্তাহের প্রতি শনি ও মঙ্গলবার দু’দিন হাট বসে। হাটের দিনগুলোতে বৃহত্তর ঈদগাওর পার্শ্ববর্তী রামু, চকোরিয়া ও পার্বত্য নাইক্ষ্যংছড়ি হতে স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত পন্য সহ নানান ধরনের পণ্য নিয়ে বাইরের ব্যবসায়ীরা আসেন। কিন্তু বেচা বিক্রির স্থান হয় বাজারের অভ্যন্তরীন রাস্তাগুলোতে। কিন্তু অল্পবৃষ্টিতে বাজারে আগত ক্রেতাসাধারনের হাঁটা চলার কোন স্বাভাবিক পরিবেশ থাকেনা। অপরদিকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা কর্দমাক্ত আর জলাবদ্ধতা পেরিয়ে স্ব স্ব শিক্ষাঙ্গনে যেতে দেখা যাচ্ছে। তার পাশাপাশি এ জলাবদ্ধতার ফলে হরেক রকমের যানবাহন চলাচল করতে দারুনভাবে দুর্ভোগে পড়েছে। সে সাথে পথচারী, ব্যবসায়ীদের কষ্ট যেন চরমে উঠেছে। বাজারের অভ্যন্তরে ড্রেন নির্মাণ করলেও ব্যবসায়ীরা উক্ত ড্রেনে ময়লা-আবর্জনা ফেলে ভরাট করে রাখে। যার দরুন বৃষ্টির পানি কোথাও যেতে না পারায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এসব বিষয়ে ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটি থাকলেও তাদের কোন মাথাব্যথা নাই বলেও অভিযোগ একাধিক পথচারীর। এদিকে জেলার আলোচিত বাণিজ্যিক এলাকা হিসাবে ঈদগাঁও বাজারের চিত্র উন্নয়নের দিক দিয়ে বহুগুণ পিছিয়ে সুদক্ষ নেতৃত্ব আর তদারকির অভাবে। বাজারের অব্যবস্থাপনার চিত্র দেখে বেশ ক’জন পথচারী এ প্রতিনিধিকে হতাশ কন্ঠে জানান, ঈদগাঁও বাজারের মত এমন হ-য-ব-র-ল অবস্থা আর কোথাও নেই। বাজারের ডিসি সড়কের অবস্থা দেখলে মনে হয়, এ যেন বাজারবাসী মগের মুল্লুকে বাস করছে। কয়েক ব্যবসায়ীর মতে, বহু লাখ টাকা এ বাজারে নিলাম ডাক হলেও পরিবর্তনের ছোঁয়া পাচ্ছে না কোনভাবে। যুগ যুগ ধরে অত্যন্ত আবশ্যকীয় পাবলিক টয়লেট ও  সুষ্টু ড্রেনেজ সিষ্টেমের অভাব, মাছ ও তরকারী বাজারের পঁচা দূর্গন্ধ পরিবেশ এখনো বিদ্যমান। এ ব্যাপারে সচেতন যুবক ইরফানুল করিমের মতে, ঈদগাঁও বাজারের অব্যবস্থাপনা নিরসনে বাজার কর্তৃপক্ষ একটু উদ্যোগ নিলে হয়ত বাজারের আসল চিত্র ফুটে উঠত। না হয় বাজারবাসী তিলে তিলে কষ্ট ভোগ করবে।

ফাইল ছবি

এই ওয়েব সাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।